বাংলায় তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পকে চাঙ্গা করতে ছক ভেঙে ইনফোসিসকে জমির মালিকানা দিয়েছে রাজ্য সরকার। এ বার এই শিল্পে বিনিয়োগ টানতে রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি) নীতিকেও ঢেলে সাজা হচ্ছে। আগামী মাসে রাজ্য সরকার আয়োজিত শিল্প সম্মেলনে এই নয়া নীতি ঘোষণা করা হবে। বৃহস্পতিবার ‘ইনফোকম ২০১৭’-র মঞ্চ থেকে এ খবর জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ দিন ষোলোয় পা দিল ‘ইনফোকম’। তিন দিনের এই তথ্যপ্রযুক্তি শিল্প সম্মেলন উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী জানান, বণিকসভাগুলির সঙ্গে কথা বলে তৈরি হচ্ছে নয়া নীতি। তিনি বলেন, ‘‘সম্পত্তি কর, ভাড়ায় ছাড়-সহ একগুচ্ছ সুবিধা দেওয়া হবে। ন্যাসকম, অ্যাসোচ্যাম ও সিআইআইয়ের সুপারিশ মাথায় রেখেই বিশেষ সুবিধা দেবে সরকার।’’ সম্পত্তি করের ক্ষেত্রে এখন ৫০ শতাংশ ছাড় পায় তথ্যপ্রযুক্তি শিল্প। লগ্নি টানতে পুরো ছাড়ের কথাই ভাবছে রাজ্য।

মার্কিন ভিসার কড়াকড়িতে আয়ে টান পড়ছে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের। বিশেষ আর্থিক অঞ্চল বা ‘সেজ’ নিয়ে রাজ্যের বিরোধিতা রয়েছে। তবে সেটা পুষিয়ে দিতে রাজ্য যে সব নতুন সুবিধা দিচ্ছে, তাতে খুশি শিল্পমহল।

যেমন ‘সেজ’ তকমা না-দিলেও ইনফোসিসকে নানা ছাড় দিয়েছে রাজ্য সরকার। রাজারহাটে ৫০ একর জমি রয়েছে ইনফোসিসের। গত সেপ্টেম্বরে সেই জমির ‘ফ্রি’ মালিকানার পাশাপাশি মিশ্র ব্যবহারে সায় দেয় রাজ্য সরকার। প্রায় ১২ বছরের টানাপড়েন শেষ করে ইনফোসিসও জানিয়ে দেয়, প্রকল্প শুরু হচ্ছে শীঘ্রই।

সব মিলিয়ে এ দিন মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট করে দিয়েছেন— কর্মসংস্থানকে পাখির চোখ করে আইটি ক্ষেত্রে প্রাণ সঞ্চার করতে চায় সরকার।