ঘরহারাদের ঘরে ফেরানোর কাজটা বহু দিন ধরেই করছেন ওয়েস্ট বেঙ্গল অ্যামেচার রেডিও ক্লাবের সদস্যেরা। সে গঙ্গাসাগর মেলাই হোক বা কুম্ভ মেলা। এ বার, হাসপাতালই ঠিকানা হয়ে গিয়েছে এমন বৃদ্ধ রোগীদের বাড়ি ফেরানোর কাজ শুরু করলেন তাঁরা। উদ্যোগটা অবশ্য রাজ্য সরকারের।

সম্প্রতি সরকারি ভাবে এ কাজ শুরু হল ব্যারাকপুর থেকে। মহকুমাশাসক পীযূষ গোস্বামী বলেন, ‘‘বেলঘরিয়া থানার তরফ থেকে জানতে পারি, সাগর দত্ত হাসপাতালে এমন অনেক রোগী আছেন যাঁরা ঘরে ফিরতে পারছেন না। তার পরেই হ্যাম রেডিও ব্যবহারকারীদের সাহায্য চেয়েছিলাম। আধার কার্ড বিভাগের কর্মীদের নিয়ে তাঁরা এই কাজ অনেকটাই সহজ করে দিয়েছেন।’’

বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে এমন অনেক রোগী আছেন, যাঁরা ঠিক মতো বাড়ির ঠিকানা বলতে পারেন না। হাসপাতালের কাছেও তাঁদের ঠিকানা নেই। ওই রোগীদের আঙুলের ছাপ নিয়ে তাঁদের বাবা বা স্বামীর নাম জেনে ঠিকানা পাওয়ার ভাবনাটা মাথায় এসেছিল ওয়েস্ট বেঙ্গল অ্যামেচার রেডিও ক্লাবের অম্বরীশ নাগবিশ্বাসের। তিনি বলেন, ‘‘যাঁদের আধার কার্ড আছে, এই প্রক্রিয়ায় তাঁদের ঠিকানা জেনে ঘরে ফেরানো সম্ভব। প্রশাসনের তরফ থেকে আমাদের বলা হয়েছিল। আমরা এবং আধার কার্ড বিভাগের কর্মীরা সাগর দত্ত হাসপাতালে গিয়ে এমন চার জন রোগীর বাড়ির খোঁজ পেয়েছি।’’

সাগর দত্ত হাসপাতালে এমন রোগীর সংখ্যা ১৫। সুপার গৌতম জোয়ারদার বলেন, ‘‘উদ্যোগটা ভালো। দেখা যাক, এর মাধ্যমে যদি এই অসহায় রোগীদের বাড়ির লোকেদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়।’’ ইতিমধ্যেই যে চার জন রোগীর বাড়ির খোঁজ মিলেছে, তাঁদের ঘরে ফেরানোর ব্যবস্থা শুরু হয়েছে। পাশাপাশি, তাঁরা ফের অসুস্থ হলে যাতে বাড়ির লোকেরা আবার হাসপাতালে রেখে পালিয়ে না যান, সে বিষয়েও নজর রাখবেন হ্যাম রেডিও ব্যবহারকারীরা।