সিবিআই তল্লাশি অভিযান চালাল মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের দফতরে। শুক্রবার সকালে সিবিআই-এর ডিএসপি রঞ্জিত কুমারের নেতৃত্বে  পাঁচ জনের একটি দল মেয়রের দফতরে যায়। সিবিআই দলটি নিজেদের ফোটোগ্রাফারদেরও নিয়ে গিয়েছিল। মেয়রের চেম্বারে ঢুকে অফিসাররা তল্লাশি চালান, ছবি তোলা হয় মেয়রের চেম্বার ও অ্যান্টি-চেম্বারের।

সিবিআই যখন তল্লাশি অভিযানে যায়, সে সময় মেয়রের চেম্বারে ছিলেন অফিসার অন স্পেশ্যাল ডিউটি(ওএসডি) অম্লান লাহিড়ি। তাঁর সামনেই মেয়রের চেম্বারের ছবি তুলতে থাকেন সিবিআইয়ের ফোটোগ্রাফাররা। নারদ নিউজের স্টিং ফুটেজে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের যে ছবি দেখা গিয়েছিল, তার সঙ্গে গোয়েন্দারা মিলিয়ে দেখেন মেয়রের দফতরের বাস্তবিক ছবি। শুধু চেম্বারের নয়, ছবি তোলা হয় মেয়রের অ্যান্টি চেম্বারেরও। সওয়া ১১টা নাগাদ মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় ঢোকেন দফতরে। তিনি ঢুকেই দেখেন সিবিআই অফিসাররা তাঁর চেম্বারের ছবি তুলছেন। মেয়র নিজের চেয়ারে গিয়ে বসেন। সেই অবস্থাতেও ছবি তোলেন সিবিআইয়ের ফোটোগ্রাফাররা। শুধু ছবি তোলা নয়, ভিডিও করা হয় গোটা তল্লাশি পর্বের। তাঁরা যে ছবি তুলছেন, তার প্রমাণ রাখার জন্য দু’জন সাক্ষীকেও নিয়ে যান সিবিআই অফিসাররা। ছবি তোলা ও তল্লাশি চালানো হয়ে গেলে ১২টা নাগাদ মেয়রের দফতর থেকে বেরিয়ে যায় সিবিআই। আচমকা মেয়রের চেম্বারে সিবিআই তল্লাশিতে শোরগোল পড়ে যায় গোটা পুর ভবনেই।

দেখুন সেই ভিডিও:

 

তাঁকে কি কোনও জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন সিবিআই অফিসাররা— এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে শোভন বলেন, “আমাকে আলাদা ভাবে কোনও কিছুই জিজ্ঞাসা করা হয়নি। শুধু দফতরের ছবি তোলা হয়েছে।”