হোটেলের ঘর থেকে চুরি গেল গয়না ও নগদ টাকা। মঙ্গলবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে নিউ টাউনে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমে পুলিশ হোটেলের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। সূত্রের খবর, সন্দেহভাজন হিসেবে এক ব্যক্তিকে চিহ্নিত করেছেন তদন্তকারীরা। তাঁর খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গুয়াহাটির বাসিন্দা রাজকুমার চৌধুরী সপরিবার গত ৩ ডিসেম্বর ওই হোটেলের একটি ঘর ভাড়া নেন।
তাঁরা শহরে এসেছিলেন এক আত্মীয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। মঙ্গলবার রাজকুমারবাবু ও তাঁর স্ত্রী কিছু ক্ষণের জন্য হোটেল থেকে বেরিয়েছিলেন। ফিরে তাঁরা দেখেন, বেশ কিছু গয়না ও প্রায় লক্ষাধিক টাকা পাওয়া যাচ্ছে না। এর পরেই তাঁরা নিউ টাউন থানায় অভিযোগ জানান।

রাজকুমারবাবুর আত্মীয়দের একাংশের কথায়, বিয়ের অনুষ্ঠানে এক ব্যক্তি হোটেলে ঘোরাফেরা করছিলেন। তাঁদের সন্দেহ, তিনিই বিয়েবাড়ির লোক সেজে হোটেলের রিসেপশন থেকে চাবি নিয়ে ঘরে ঢুকেছিলেন। সূত্রের খবর, যে ঘরে চুরি হয়েছে, সিসি ক্যামেরার ফুটেজে এক ব্যক্তিকে সেই ঘরে ঢুকতে দেখা গিয়েছে। যদিও হোটেল কর্তৃপক্ষ পুলিশকে জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তি হোটেলের কেউ নন।

এখানেই প্রশ্ন উঠেছে, যদি ক্যামেরার ফুটেজে চিহ্নিত ব্যক্তি হোটেলের কর্মী না হন, তা হলে তিনি কী ভাবে ঘরে ঢুকতে পারলেন? পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই হোটেলের নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষী আছেন। তা সত্ত্বেও সন্দেহভাজন ব্যক্তি কী ভাবে এবং কখন হোটেলে ঢুকেছিলেন, তা জানতে ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। হোটেল কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, তাঁরা অতিথিদের নিরাপত্তা এবং সুরক্ষায় সর্বাধিক জোর দেন। তার পরেও এমন ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক। তদন্তে পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে সব রকমের সহযোগিতা করা হবে। পাশাপাশি, অভ্যন্তরীণ তদন্তও শুরু করেছেন কর্তৃপক্ষ। হোটেলের নিরাপত্তা ব্যবস্থাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

 

কলকাতার আরও খবর পড়তে চোখ রাখুন আনন্দবাজারে।