বৈধ পরিচয়পত্র না থাকায় গ্রেফতার হলেন দশ নাইজিরীয় নাগরিক। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ব যাদবপুর থানার অরণ্যনগর থেকে শুক্রবার রাতে গ্রেফতার করা হয় ওই দশ যুবককে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ জানান, সপ্তাহখানেক আগে পাসপোর্ট, ভিসা দেখিয়ে ঘর ভাড়া নিয়েছিলেন পাঁচ নাইজিরীয় যুবক। কয়েক দিন পরেই সেই ঘরে আনাগোনা শুরু করেন আরও জনা দশেক নাইজিরীয় নাগরিক। বাড়ির মালিক জিজ্ঞাসা করলে ওই ভাড়াটেরা জানান, তাঁদের বন্ধুরা দেখা করতে আসেন। এর পরে বাড়িওয়ালা আপত্তি করেন নি। তবে তাঁদের গতিবিধি দেখে সন্দেহ জাগে প্রতিবেশীদের। থানার সঙ্গে যোগাযোগ করেন তাঁরা।

কলকাতা পুলিশের সিকিউরিটি কন্ট্রোলের দল শুক্রবার রাত আড়াইটে নাগাদ হানা দেন ওই বাড়িতে। তখন সেখানে পনেরো জন নাইজিরীয় নাগরিক ছিলেন। তল্লাশিতে পাঁচ জনের বৈধ পাসপোর্ট ও ভিসা মেলে। কিন্তু বাকি দশ জনের কোনও বৈধ পরিচয়পত্র পাওয়া যায়নি। এর পরেই তাঁদের গ্রেফতার করে পুলিশ। ধৃতেরা জানিয়েছেন, তাঁরা গোয়ায় থাকেন। সেখানে স্থানীয় ক্লাবের হয়ে ফুটবল খেলেন। তাঁরা কিছু পরিচয়পত্রও দেখান। কিন্তু প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, ওই সমস্ত পরিচয়পত্র নকল। লালবাজারের কর্তারা দিল্লিতে নাইজিরীয় দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

প্রশ্ন উঠেছে, কী ভাবে ওই যুবকেরা পাসপোর্ট ও ভিসা ছাড়া নাইজিরিয়া থেকে ভারতে এলেন? গোয়া থেকেই বা কেন এলেন কলকাতায়? ওই বাড়ি ছাড়া কোথায় কোথায় আনাগোনা ছিল ওই যুবকদের? এক পুলিশকর্তা জানান, তাঁদের কাছে কোনও সন্দেহজনক জিনিস মেলে নি। মাদক পাচার চক্র বা জঙ্গিদের সঙ্গে তাঁদের যোগাযোগ আছে কি না তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা।