বিস্তর টালবাহানার পরে পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ায় তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প তৈরির কাজ শুরু হয়। কিন্তু সম্প্রতি সেই প্রকল্প থেকে অর্ধেক কর্মী-আধিকারিককে বদলি করে দিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত বিদ্যুৎ সংস্থা এনটিপিসি। তার পরেই প্রকল্পের ভবিষ্যৎ নিয়েই প্রশ্ন উঠেছে রাজ্য প্রশাসন থেকে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। রবিবার কাটোয়ায় এসে সেই প্রশ্নই ফের উস্কে দিলেন সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম।

এ দিন কাটোয়া স্টেশন বাজারে গণসম্মেলনের আয়োজন করে ডিওয়াইএফ। সেই সম্মেলনে যোগ দিয়েই সেলিম বলেন, ‘‘পাঁচ বছর ধরে কাটোয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জমি ফাঁকা পড়ে রয়েছে। বর্তমানে তা ‘গোচারণভূমি’তে পরিণত হয়েছে।’’ কবে কাটোয়ার উড়ালপুল তৈরি হবে, সে প্রশ্নও করেন সিপিএম সাংসদকে।

এ ছাড়া সভা থেকে নোট বদল-সহ সাম্প্রতিক বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন সেলিম। রবিবার বিকেলে আয়োজিত ওই সভায় যোগ দিয়েছিলেন ডিওয়াইএফের জেলা সম্পাদক পরেশ মণ্ডল, প্রাক্তন জেলা সভাধিপতি উদয় সরকার, কেতুগ্রাম জোনাল কমিটির সম্পাদক মিজানুল কবীর প্রমুখ। যোগ দেন হাজার তিনেক সিপিএম কর্মী-সমর্থক।

 সভা থেকে পঞ্চায়েত নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া, আগামী ২২মে নবান্ন অভিযানে যোগ দেওয়ার জন্যও আহ্বান জানান সেলিম।