প্রথমে ঝড়। তার পরে বৃষ্টি। সঙ্গে বজ্রপাত।

প্রখর গরমে সোমবার দুপুর পর্যন্ত নাজেহাল হুগলির বাসিন্দারা বিকেলে আবহাওয়ার এই পরিবর্তনে স্বস্তি পেয়েছেন। কিন্তু বজ্রপাতে তিন এলাকায় প্রাণ গেল তিন কিশোর-সহ পাঁচ জনের। জখম হল এক কিশোর।   

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃষ্টির মধ্যেই চুঁচুড়ার বসন্তবাগান এলাকার একটি মাঠে ফুটবল খেলছিল কিছু কিশোর। বজ্রপাতে জখম হয় চার জন। চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে শুভজিৎ দাস (১৬) এবং দীপঙ্কর পাল (১৪) নামে দুই কিশোরকে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণা করেন। সুশান্ত হাওলাদার নামে তাদের এক বন্ধু ওই হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। একই সময়ে ব্যান্ডেলের দেবানন্দপুর এলাকায় মাঠে খেলার সময় বজ্রপাতে জখম দুর্জয় পাল (১১) নামে আর কিশোরকেও ওই হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণা করেন। খেতের কাজ সেরে বাড়ি ফেরার পথে ধনেখালির চৌতারা মামুদপুর এলাকার বাসিন্দা মলয় ঘোষ (৪০) এবং প্রসেনজিৎ বেরাও (৩২) বজ্রপাতে মারা যান।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কিশোর সুশান্ত বলে, ‘‘মাঠে খেলছিলাম। হঠাৎই কালো মেঘ করে বৃষ্টি শুরু হল। তার পর বিদ্যুৎ চমক। মাঠে আলোর ঝলকানি! তারপর কিছু বুঝতে পারিনি।’’