গত বছর নামমাত্র। এ বছর থেকে আরও বেশি ব্যবহারিক হয়ে উঠবে গঙ্গাসাগর মেলার জন্য জেলা প্রশাসনের তৈরি মোবাইল অ্যাপ। এখানে উঁকি মারলেই জানা যাবে তিন রকম ভাষায় (ইংরেজি, হিন্দি, বাংলা) জোয়ার-ভাটা, ট্রেন-বাসের সময়। তার সঙ্গেই যোগ হচ্ছে, জিআইএস ম্যাপিং। মেলায় যাঁরা হারিয়ে যাবেন, তাঁদের ছবিও ফুটে উঠবে এই অ্যাপে। ধর্মস্থান গঙ্গাসাগরকে এ বার আরও বেশি ডিজিটাল করতে উদ্যোগী হয়েছে জেলা প্রশাসন। জেলাশাসক পিবি সালিম বলেন, ‘‘গত বছরও আমরা একটি অ্যাপ তৈরি করেছিলাম। কিন্তু সেটা ছিল ট্রায়াল মাত্র। এ বার সব দিক থেকেই অ্যাপকে শক্তিশালী করা হয়েছে। এটি ব্যবহার করাও সহজ।’’ এখন অ্যাপটির শেষ মুহূর্তের ট্রায়াল চলছে। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, অ্যাপের পোশাকি নাম, ‘গঙ্গাসাগর মেলা ২০১৭’। জেলা প্রশাসনের এক কর্তা জানান, হারিয়ে যাওয়া ব্যক্তির নাম-ঠিকানা অ্যাপে দিয়ে দিলে সেটি সঙ্গে সঙ্গে মেলার কন্ট্রোলরুমে পৌঁছে যাবে। তারপরে সেগুলি দেখানো হবে মেলার মধ্যে থাকা জায়ান্ট স্ত্রিনে। মেলায় কোথায় কী পরিষেবা মিলছে, তা-ও জানা যাবে অ্যাপ ঘেঁটে। গুগল প্লে স্টোর থেকে নিখরচায় অ্যাপটি স্মার্ট ফোনে ডাউনলোড করা যাবে। তবে সাগরদ্বীপ এবং নামখানায় মোবাইলের নেটওয়ার্ক সিগনাল খুবই খারাপ। সেখানে এই অ্যাপ ব্যবহার করা সাধারণ তীর্থযাত্রী বা অন্যান‌্যদের পক্ষে বা কতটা সুবিধাজনক হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে? জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বিএসএনএলের সঙ্গে কথাবার্তা চালানো হচ্ছে। বাকি ইন্টারনেট পরিষেবা সরবরাহকারী সংস্থাগুলির সঙ্গেও আলোচনা করা হয়েছে, যাতে মেলার ক’টা দিন সিগন্যাল ভাল থাকে।