৬ বৈশাখ, রবিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৪ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ৩৮.১°C     সর্বনিম্ন : ২৭.৫°C

নতুন প্রজন্মকে টানতে মুখোশ-টুইটার

সুস্মিত হালদার

নতুন প্রজন্মের ভোটারদের প্রভাবিত করতে মরিয়া সব দল। কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রে এদের কেউ বা ভোটার তালিকা থেকে নতুন প্রজন্মের ভোটারদের আলাদা করে চিহ্নিত করছেন। তারপরে নানা ভাবে তাদের কাছে পাঠাচ্ছেন দলের ছাত্র ও যুব সংগঠনগুলির নেতা কর্মীদের।

১৯ এপ্রিল, ২০১৪

বিভিন্ন হোটেলে নজরদারি শুরু

শুভাশিস সৈয়দ

মালদহে বেসরকারি হোটেলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরের এসি মেশিন বিপত্তির জেরে শুক্রবার সকালে জেলাপ্রশাসনিক কর্তাদের মোবাইলে একটি এসএমএস এসেছে। তাতে লেখা রয়েছেকোনও ‘পলিটিক্যাল ভিআইপি’ বেসরকারি হোটেলে থাকলেও পূর্ত দফতরের কর্মীদের (ইলেকট্রিক ও সিভিল) সেই হোটেলে পাঠিয়ে সমস্ত বিষয় সরজমিনে তদন্ত করে দেখতে হবে।

১৯ এপ্রিল, ২০১৪

শেষবেলায় সভা করতে
ভিড় সব দলের

নিজস্ব সংবাদদাতা

১৮ এপ্রিল, ২০১৪

ঝামেলা এড়াতে এ বার
ভোটই ব্রাত্য বোলানে

নিজস্ব সংবাদদাতা

পড়ন্ত বিকেলে মণ্ডপের মাইক নাগাড়ে আউড়ে চলেছে---‘আর একটু পরেই শুরু হবে বোলান। পালার নাম হরিশচন্দ্র শৈব্যা। তাড়াতাড়ি বাড়ির কাজ সেরে চলে আসুন...।’ মাইকে ঘোষণা চলাকালীন বেলডাঙা শিব মন্দিরের সামনে এসে দাঁড়াল ছোট ট্রাক। এক এক করে নামলেন রাজা হরিশচন্দ্র ও দলের আরও অনেকে।

১৮ এপ্রিল, ২০১৪

কর্মী খুনে সামনে কোন্দল,
গাংনাপুরে অস্বস্তিতে তৃণমূল

নিঞ্জস্ব সংবাদদাতা

লোকসভা নির্বাচনের আগে দলীয় কর্মী তাপস মজুমদার খুনের ঘটনায় গাংনাপুরের দেবগ্রাম পঞ্চায়েতের দলের উপপ্রধান অরুণ শিকদারের নাম জড়িয়ে যাওয়ায় অস্বস্তিতে পড়ল তৃণমূল।

১৮ এপ্রিল, ২০১৪

মুচলেকা দিয়েও নাবালিকার
বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা পরিবারের

সেবাব্রত মুখোপাধ্যায়

নাবালিকা মেয়ের বিয়ে দেবেন না বলে পুলিশের কাছে মুচলেকা দেওয়ার পরেও ফের তলে-তলে বিয়ের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছিলেন বাবা। স্কুলের শিক্ষিকাদের সাহায্যে ওই নাবালিকা সে কথা ফের পৌঁছে দিল পুলিশকে। বাবাকে ফের ডেকে মুচলেকা লেখাল পুলিশ।

১৮ এপ্রিল, ২০১৪

চিত্র সংবাদ

১৮ এপ্রিল, ২০১৪

সিপিএম সুযোগসন্ধানী, সম্মেলনে বললেন ব্রাত্য

শাসকদল নিয়ন্ত্রিত প্রাথমিক শিক্ষকদের দ্বিতীয় জেলা সম্মেলনে শনিবার নদিয়ার রানাঘাটে এসে সিপিএম-কে সুযোগসন্ধানী বলে মন্তব্য করলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তিনি বলেন, “সিপিএম লোকসভা নির্বাচনের পর কেন্দ্রীয় সরকারে অংশ নেয় না। আসলে ওরা কাজ করতে ভয় পায়। তাই বাইরে থেকে কোনও সরকারকে সমর্থন করে। আমাদের সমস্ত প্রার্থীদের জেতান। ভোটের পর আমরা সরকার গড়ব।”

পড়ুন