মুকুল রায়ের মাধ্যমে তৃণমূলের গোপন তথ্য সংগ্রহ করে রাজ্যের শাসক দলের সর্বনাশ করবে বিজেপি৷ সোমবার জলপাইগুড়ির রানিনগরে এই মন্তব্য করলেন বিজেপি নেতা রাহুল সিংহ৷

এ দিন রানিনগরে ভারতীয় জনতা তফসিলি মোর্চার বার্ষিক জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়৷

ওই সম্মেলনে রাহুল বলেন, “তৃণমূলের গোপন তথ্য থেকে শুরু করে দূর্বলতা—যা কিছু রয়েছে, তার সবটাই মুকুল রায় জানেন৷ তাই তৃণমূলের সর্বনাশের ক্ষেত্রে মুকুল রায়ের বুদ্ধি অনেকটাই কাজে দেবে৷ আমরা সে ভাবেই তাঁকে কাজে লাগাব৷ যাতে তাঁর মাধ্যমে তৃণমূলের গোপন যে সব তথ্য রয়েছে তার খবর সংগ্রহ করে আমরা তৃণমূলের সর্বনাশ করতে পারি৷’’

তাঁর কথায়, তারপরেই উপযুক্ত সময়ে তৃণমূলের ধ্বংসলীলা বাংলার মানুষ দেখতে পাবেন৷

রাজ্যে ডেঙ্গির প্রসঙ্গ তুলে এই সময় মুখ্যমন্ত্রীর লন্ডন সফরের কড়া সমালোচনা করেন রাহুল৷ তাঁর বক্তব্য, রাজ্যে ডেঙ্গি মহামারির আকার নিয়েছে৷ প্রতিদিনই এই রোগে মানুষ মারা যাচ্ছে৷ অথচ, ডেঙ্গি প্রতিরোধে কোনও ব্যবস্থা না নিয়ে, ডেঙ্গির তথ্য চাপার চেষ্টা করছে সরকার৷ ডেঙ্গি নিয়ে ফেসবুকে মন্তব্য করায় চিকিৎসককে সাসপেন্ড করে দেওয়া হচ্ছে৷ আর এমন একটা ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে রাজ্যের মানুষের পাশে না দাড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী আমোদ করতে লন্ডনে চলে গেলেন৷ তাঁর কথায়, রাজ্যের বর্তমান সরকার আসলে মানব বিরোধী সরকার৷

এরপরই তিনি বলেন, প্রয়াত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু যে কায়দায় শিল্পের নামে বিদেশ সফর করতেন, একই কায়দায় বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীও বিদেশ সফরে চলে যাচ্ছেন৷ তাঁর বিদেশ সফর থেকে একটি শিল্পও আসছে না৷ উল্টে একের পর এক শিল্প বন্ধ হচ্ছে৷ তাঁর কটাক্ষ, “যে রাজ্যের শিল্পের জন্য জমি পাওয়া যায় না, তোলাবাজি ছাড়া শিল্প গড়া যায় না- সেখানে কোন শিল্পপতি আসবেন?”

পঞ্চায়েত নির্বাচনে শাসকদল সন্ত্রাস করলে জনঢাল তৈরি করে তার প্রতিরোধ করা হবে বলেও এদিন হুশিয়ারি দেন রাহুল সিংহ৷ বলেন, পঞ্চায়েত নির্বাচনে বুথকে শক্তিশালী করার টার্গেট নিয়ে বিজেপির নেতারা কাজ করছেন৷ যে ভাবে কাজ হচ্ছে তাতে বিজেপি ভাল ফলই করবে বলে তিনি বিশ্বাসী৷ কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল সন্ত্রাস করলে মানুষকে সঙ্গে নিয়ে তা রোখা হবে৷ জনঢাল তৈরি করে সেই সন্ত্রাসের প্রতিরোধ করা হবে৷

তৃণমূল অবশ্য জানিয়েছে, রাহুল ভিত্তিহীন অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রীর প্রসঙ্গে। শাসক দলের এক নেতা বলেন, মুকুলবাবুর কাছ থেকে গোপন খবর পাওয়ার আশা করা থেকেই বোঝা যায়, এই রাজ্যে বিজেপির জনভিত্তি কতটা দুর্বল।