হেলমেট না পরলেও পুলিশ কড়াকড়ি করতে পারবে না— এই ‘আবদারে’ পথ অবরোধ হল বড়জো়ড়ায়।

অবরোধকারীদের দাবি, হেলমেট নিয়ে পুলিশ কড়াকড়ি করায় যানজট হচ্ছে। শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে অল্প কিছুক্ষণের জন্য পথ অবরোধ করে এর প্রতিবাদ করেন প্রায় একশো জন। আর তার জেরে চৌমাথা মোড়ে বাঁকু়ড়া-দুর্গাপুর রাজ্য সড়কে যানজট হয়। অবরোধকারীদের আরও দাবি, পুলিশ কড়াকড়ি করায় দ্রুত এলাকা থেকে মোটরবাইক নিয়ে বেরোতে গিয়ে দুর্ঘটনা ঘটছে। এই ব্যাপারে এক পুলিশকর্মীর মন্তব্য, ‘‘হেলমেট পরলে দুর্ঘটনা হলে মাথাটা বাঁচে। অবরোধকারীদের কথাবার্তা শুনে তো মনে হচ্ছে হেলমেট পরলে দুর্ঘটনাটাই হবে না।’’

হেলমেট পরতে অনীহা কেন? অবরোধকারীদের অধিকাংশই নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। তাঁদের একাংশের বক্তব্য, ‘‘বাড়ি থেকে একটু দূরে হেলমেট পরে যেতে অস্বস্তি হয়। ছেলে মেয়েদের স্কুল থেকে আনতে গেলেও হেলমেট পরতে হচ্ছে।’’ অবিলম্বে হেলমেট নিয়ে কড়াকড়ি বন্ধ করতে হবে বলে তাঁরা দাবি জানিয়েছেন। অবশ্য পুলিশ কর্মীদের মতে, হেলমেট পরা নিয়ে এই অস্বস্তি কাটাতেই নিয়মিত পথে নামা হচ্ছে। পুলিশ কর্মীদের পাশাপাশি স্কুলের পড়ুয়া এবং ক্লাবের সদস্যরাও সচেতনতা সংক্রান্ত নানা ধরনের কাজ করছেন।

অবরোধকারীদের দাবি মানতে নারাজ জেলার বাঁকুড়া জেলা পুলিশ সুপার সুখেন্দু হীরাও। তিনি বলেন, ‘‘চৌমাথা মোড়ে গাড়ির গতি কম থাকে বলে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা কম। যানজট হচ্ছে বলে যে অভিযোগ তোলা হচ্ছে তা ভিত্তিহীন।”