স্কুলে স্কুলে শ্লীলতাহানির অভিযোগ! একই দিনে উত্তপ্ত হল কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, বীরভূম। কলকাতার দেশপ্রিয় পার্ক আর উত্তর ২৪ পরগনার গোপালনগরের দুই স্কুলে অভিযুক্ত দুই শিক্ষক। আর বীরভূমের সিউড়িতে স্কুলে ঢুকে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে বহিরাগত যুবকের বিরুদ্ধে।

আর টি গার্লস স্কুল সিউড়ির শতাব্দীপ্রাচীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। গত বুধবার এই স্কুলের পাঁচিল টপকে ভিতরে ঢুকে, সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে।

ওই স্কুলের হাজারেরও বেশি ছাত্রী। অভিযোগ, ওই দিন টিফিনের সময় ওই যুবক পাঁচিল টপকে স্কুলে ঢুকে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করেন। মেয়েদের নিরাপত্তার প্রশ্ন তুলে শুক্রবার স্কুলের সামনে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা।

আরও পড়ুন: যৌন নিগ্রহের অভিযোগ গোপালনগরের স্কুলেও, মারধর-ভাঙচুর

আরও পড়ুন: শিশুর ‘যৌন নিগ্রহ’ ঘিরে ধুন্ধুমার কারমেল স্কুলে, ধৃত নাচের শিক্ষক

পুলিশ জানিয়েছে, ছাত্রীর পরিবার বৃহস্পতিবার রাতে ওই যুবকের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগ, স্কুলের শৌচাগারের সামনে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করেছেন ওই যুবক। ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে যুবককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

যদিও এ নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষের মধ্যে। প্রধান শিক্ষিকা মৌ দাশগুপ্ত বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, এত বড় একটা ঘটনা ঘটল অথচ স্কুলের কেউই জানতে পারল না কেন। একই সঙ্গে তিনি বলেন, এমন ঘটনা যদি সত্যিই ঘটে থাকে, তা হলে অভিভাবকদের উচিত ছিল বিষয়টি আগেই স্কুল কর্তৃপক্ষের নজরে আনা। তবে তিনি আশ্বাস দেন, স্কুল বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করবে।

এ দিকে, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন ওই যুবক। তাঁর দাবি, যে সময় ঘটনাটি ঘটেছে বলে বলা হচ্ছে, তখন তিনি স্কুলের ধারেকাছেও ছিল না। ষড়যন্ত্র করে তাঁকে ফাঁসানো হচ্ছে বলে অভিযুক্তের দাবি।