দোকানে দোকানে তল্লাশি চালিয়ে নিষিদ্ধ প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মোকলের জিনিস বাজেয়াপ্ত শুরু করল প্রশাসন। শনিবার সকাল থেকে মহকুমা শাসক ও পুরসভার চেয়ারম্যান ওই অভিযান চালান। বাজেয়াপ্ত করা হয় বহু নিষিদ্ধ প্লাস্টিক। সর্তক করা হয় ব্যবসায়ীদেরও।

সম্প্রতি আলিপুরদুয়ার শহর ও সংলগ্ন এলাকায় প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মোকলের জিনিস নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন মহকুমা শাসক। পুরসভাকে নির্দেশ দেওয়া হয় শহরে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ নিয়ে প্রচার করতে। শনিবার মহকুমা শাসক ও পুরসভার চেয়ারম্যান দু’টি দল গড়ে দোকানের গুদামগুলোতে তল্লাশি চালান। রবিবারেও অভিযান চালাবেন তাঁরা।

আলিপুরদুয়ারের মহকুমা শাসক সমীরণ মণ্ডল জানান, বেশ কিছুদিন ধরে প্রচার চলছে।

ব্যবসায়ী সংগঠনকে সর্তক করা হয়েছিল। তিনি আরও জানান, প্রথম দু’দিন প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মোকলের তৈরি থালা, বাটি বাজেয়াপ্ত করা হবে। কোনও ব্যবসায়ীকে জরিমানা না করে শুধুমাত্র সতর্ক করা হবে। দু’দিন পর থেকেই শুরু হবে জরিমানার কাজ। প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগের বিকল্প হিসেবে কাগজের ঠোঙা ও কাগজের ব্যাগ তৈরির উপরে জোর দেওয়া হয়েছে। আলিপুরদুয়ার ১ ব্লকের মহিলা স্বর্নিভর গোষ্ঠীগুলোকে সেই বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রচারের ফলে কিছু দোকান প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগের ব্যবহার বন্ধ করেছে বলে জানান আলিপুরদুয়ার পুরসভার চেয়ারম্যান আশিষ দত্ত। তবে তা সংখ্যায় কম।

এ দিন ফুটপাথ দখল করে সাইনবোর্ড বা ব্যবসার জিনিস রাখা নিয়েও দোকানদারদের সর্তক করেছে প্রশাসন। চেকিং হয়েছে ট্রেড লাইসেন্স নিয়েও। ২০ জুলাই থেকে পুরসভার কর্মীরা ফুটপাথ দখল মুক্ত করতে অভিযানে নামবেন বলে
জানা গিয়েছে।