দলবিরোধী কাজের অভিযোগে দলের প্রতিষ্ঠাতা, প্রয়াত মদন তামাঙ্গের স্ত্রী তথা সভানেত্রী-সহ ৪ জনকে সাসপেন্ড করল গোর্খা লিগ। রবিবার বিকেলে দার্জিলিঙের লাডেনলা রোডে দলের অনুশাসন কমিটির বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দলীয় সূত্রের খবর, ভারতী তামাঙ্গকে তিনমাসের জন্য, জেলা কমিটির নেতা লক্ষণ প্রধানকে তিন বছর ও বি রাই এবং পি সুব্বাকে এক বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে। ১২ সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে উত্তরকন্যায় পাহাড় সমস্যা নিয়ে সর্বদল বৈঠক হয়। তার আগের দিন গোর্খা লিগের বৈঠকে ঠিক হয়, দল বৈঠকে যোগ দেবে না। তারপরেই ভারতীদেবীর নেতৃত্বে ওই নেতারা শিলিগুড়ি নেমে বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ।

দলের সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ খাতি জানান, শোকজের চিঠি নিতে অস্বীকার করেন ভারতীদেবী। বাকিরাও উত্তর দেননি। অনুশাসন কমিটি প্রায় এক মাস অপেক্ষা করার পর চার জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। বাড়ির ঠিকানায় চিঠি দিয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে। চার জনের মধ্যে লক্ষ্মণ প্রধানের নামে তহবিল নয়ছয়ের অভিযোগও জমা পড়েছে। তাই তাঁকে তিন বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে। সভাপতি বা সভানেত্রীর কাজ কে চালাবেন, তা দল দ্রুত ঠিক করে ঘোষণা করবে। রাতে দলীয় সিদ্ধান্ত নিয়ে মোবাইলে ভারতীদেবীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তিনি কোনও মন্তব্য করতে চাননি। উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ২১ মে ক্লাব সাইড রোডে সকালে সভার প্রস্তুতির সময় খুন হন মদন তামাঙ্গ। তার পরেই ভারতীদেবী দলের সভানেত্রী হন।