সকাল ৯টা নাগাদ স্কুল খুলতে এসে এক জন্তুর পায়ের ছাপ দেখে চমকে গিয়েছিলেন স্কুলের এক কর্মী। শনিবার আলিপুরদুয়ার শহরের ম্যাকউইলিয়াম হাইস্কুল চত্বরে এই ঘটনার পরেই আতঙ্ক ছড়ায়।

ওই কর্মী জানান, প্রাথমিক স্কুল ও হাইস্কুলের সংযোগস্থলে অবস্থিত ক্যান্টিনের সামনে থেকে স্কুলের গেটের দিকে প্রায় কুড়ি মিটার এলাকায় ছিল অজানা জন্তুর পায়ের ছাপ। বড় জন্তু পায়ের ছাপের সঙ্গে ছোট পায়ের ছাপও মিলেছে। এই ঘটনায় শহরে ছড়িয়েছে চিতাবাঘের আতঙ্ক। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বনকর্তা থেকে পুলিশ সকলেই।

বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের এফডি উজ্জল ঘোষ জানিয়েছেন, বন দফতরের তরফে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বছর দুয়েক আগে এই স্কুল সংলগ্ন পার্কে বন দফতরের পাতা খাঁচায় ধরা পড়েছিল চিতাবাঘ। সেই চিতাবাঘটি পার্কের তলায় একটি নালায় থাকত। স্কুলের সামনেও একটি লম্বা নালা রয়েছে। সেখানে সার্চলাইট দিয়ে পরীক্ষা করলেও কিছু পাওয়া যায়নি। প্রয়োজনে খাঁচাও পাতা হবে বলে জানান তাঁরা।

বিষয়টি নিয়ে স্কুল পরিচালন সমিতির সভাপতি বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী বৈঠক করেন। সোমবার থেকে প্রাথমিক স্কুলটি কয়েকদিনের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বন দফতরের তরফে খাঁচা পাতা হবে বলে জানান তিনি। স্কুলে বসবে ক্যামেরাও।