কালো পোশাকের সঙ্গে রোদচশমায় ঢাকা দু’চোখ। মাথায় ছাতা ধরে এক জন। শুটিংয়ের ফাঁকে দুবাইয়ের বিচে এ ভাবেই ঘোরাফেরা করছিলেন পরিণীতি চোপড়া। তা সে ভিডিও ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করামাত্রই বিতর্কের ঝড়। সকলেরই প্রায় একই প্রশ্ন, ‘নিজের ছাতা ধরতেও কি বলি-নায়িকার লোকের প্রয়োজন হয়?’ ব্যঙ্গ-বিদ্রূপে ঠাসা মন্তব্যের জেরে শেষমেশ সেই পোস্ট সরিয়ে নিতে বাধ্য হলেন তিনি।

আরও পড়ুন

নিজের বায়োপিকে কাকে পছন্দ? বলে গিয়েছেন জয়ললিতা

ওই ছবি নিয়ে যে এত বির্তক হবে তা বোধহয় ভাবতেও পারেননি ‘ইশকজাদে’র নায়িকা। অক্ষয় রাজ পরিচালিত ‘মেরি প্যায়ারি বিন্দু’র শুটিংয়ের জন্য কয়েক দিন দুবাইয়ে রয়েছেন। যশরাজ ফিল্মের প্রযোজনায় আয়ুষ্মান খুরানা বিপরীতে দেখা যাবে তাঁকে। তা শুটিংয়ের শেষে সি-বিচেই খানিকটা হেঁটে বেড়াচ্ছিলেন পরিণীতি। সঙ্গে ফিল্ম ইউনিটেরই এক অ্যাসিস্ট্যান্ট। কড়া রোদের হাত থেকে নায়িকাকে বাঁচাতে তাঁর মাথায় ছাতা ধরে হাঁটছিলেন তিনি। কাঁধে কয়েকটি ঢাউস ব্যাগ। তার মধ্যে একটি লেডিস হ্যান্ডব্যাগও ছিল। যা দেখে পরিণীতিরই বলে মনে হয়েছে অনেকের। হাঁটতে হাঁটতেই নিজের সেই ভিডিও পোস্ট করেছিলেন নায়িকা। তার পরেই ইনস্টাগ্রামে একের পর এক ঝাঁঝালো মন্তব্য ছুটে আসে। এক জন ব্যঙ্গ করে বলেন, “নিজের ছাতা নিজে ধরলে আপনার স্টার ইমেজ খসে পড়বে না!” অন্য জনের খোঁচা, “ছাতাটার ওজন বোধহয় ১০০ কেজি ছিল!”

বেগতিক দেখে ইনস্টাগ্রাম ওই ভিডিও সরিয়েও তার জায়গায় অন্য ছবি দিলেও কমেনি ব্যঙ্গের কাঁটা। অন্য ছবি দেখেও খোঁচা, “আপনার কো-স্টার ওই ছাতাওয়ালা কোথায় গেল?” 

আরও পড়ুন

বলিউড বক্স অফিসের সব রেকর্ড ভেঙে দিল ‘দঙ্গল’