সময় এখন সোশ্যালের। সোশ্যাল মিডিয়ায় দৌলতে আরও একটু সামাজিকতা। কিন্তু যে সোশ্যাল মিডিয়ায় কম্পিউটারের উল্টোদিকে বসা মানুষ নারীর পোশাক-আশাক, নারীর ব্যক্তিস্বাতন্ত্র নিয়ে প্রশ্ন তোলে, তার কীসের সামাজিকতা? উত্তরটা খোঁজার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন ঋতাভরী চক্রবর্তী। সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন কল্কি কোয়েচলিন। ছবির নাম ‘নেকেড’। আন্তর্জাতিক নারী দিবসের দিন মিনিট ১৫ এর এই ছবি ইউটিউবে আসে। ছবির পরিচালক রাকেশ কুমার। 

আরও পড়ুন: সিনেমার একটা কস্টিউমের দাম কোটি টাকা!

‘নেকেড’-এর পোস্টার

ছবিতে কল্কি একজন অভিনেত্রী। তাঁর অভিনীত এক ছবির নগ্নদৃশ্যের ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় হঠাৎই। তার কারণও এই সোশ্যাল মিডিয়া। সেই দিনই অভিনেত্রীর বাড়িতে সাক্ষাৎকার নিতে আসার কথা এক সাংবাদিকের। যার চরিত্রে অভিনয় করছেন ঋতাভরী। বেশ কিছুদিন ধরে অনেক খাটনির পরে সাংবাদিক তৈরি করেছেন প্রশ্ন। কিন্তু অভিনেত্রীর ওই ভাইরাল ভিডিও বেরনোর পর থেকেই সাংবাদিকের প্রশ্ন সব পাল্টে দিতে বলেন তাঁর বস। আর জোড় দিতে বলেন নায়িকার ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে। এরপরই ছবিটি অন্য মোড়ে ঘোরে।

দেখুন ভিডিও