হেডলাইনটা পড়ে চমকে উঠলেন? ছবি দেখে তো এঁকে চিনতে পেরেছেন। ঠিকই ধরেছেন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। ছোটপর্দা হোক বা বড়পর্দা, তাঁর অভিনয় বারবার মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। তিনি নাকি পকেটমারের পাল্লায়? এমন হেডলাইন পড়লে চমকে যাওয়াটা অস্বাভাবিক নয়।

তবে এটা হলফ করে বলা যায়, হেডলাইনে কোনও ভুল তথ্য নেই। সৌজন্যে সায়নীর শর্টফিল্ম ‘পকেটমার’। ৩০ ডিসেম্বর থেকে ওয়েব প্ল্যাটফর্ম ‘হইচই’-এ যা দেখতে পাচ্ছেন দর্শক।

না! সায়নী হয়তো সেখানে ‘পকেটমার’ নন। কিন্তু ‘পকেটমার’ তাঁর জীবনে জড়িয়ে যায় ওতপ্রোত ভাবে। তারপর? ছবি জুড়ে তারই উত্তর রেখে গিয়েছেন পরিচালক অন্নপূর্ণা বসু।

আরও পড়ুন, ২০১৭-এর টলিউড @ কন্ট্রোভার্সি

সায়নী শেয়ার করলেন, ‘‘এটা একটা সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার। আমার চরিত্রে নাম সৃষ্টি। অফিস গোয়িং গার্ল। রোজ দেরি হয় অফিস যেতে। আর ও মিথ্যে গল্প বলে। সেই মিথ্যেটাই কী ভাবে সত্যি হয়ে যায়, সেটা নিয়ে গল্প।’’


‘পকেটমার’-এর পোস্টারে সায়নী।

২০ মিনিটের এই শর্টফিল্ম দু’দিনে শুট করেছে গোটা টিম। একটি মেয়ের সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে রাতে বাড়ি ফেরা পর্যন্ত— অর্থাত্ একদিনের গল্প ফ্রেমবন্দি হয়েছে। সায়নী বললেন, ‘‘আমাকে এতদিন বোল্ড, স্মার্ট চরিত্রে দেখেছেন দর্শক। এ বার একদম আলাদা। আর নতুন চরিত্রে কাজ করাটা সবসময়ই চ্যালেঞ্জিং।’’

বলিউড-টলিউড-টেলিউডের হিট খবর জানতে চান? সাপ্তাহিক বিনোদন সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন