আবারও আগুনের কবলে নিউ ইয়র্কের ব্রঙ্কস। এ বার একটি আসবাবপত্রের দোকানে আগুন লেগে জখম হয়েছেন ১২ জন। তাঁদের মধ্যে এক জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ ব্রঙ্কস-এর কমনওয়েলথ অ্যাভিনিউয়ের চারতলা একটি আবাসনের দোতলার ওই দোকানে আগুন লাগে। তার পর সেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে গোটা আবাসনে। কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা এলাকা। তবে, আগুন লাগার কারণ এখনও জানা যায়নি।

আগুনের খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দমকল। কিন্তু, তত ক্ষণে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। কনকনে ঠান্ডায় দমকল কর্মীরা ওই আবাসনের বাসিন্দাদের উদ্ধার করেন। আগুন ছড়িয়ে পড়ায় অনেককেই জানলা-দরজা ভেঙে উদ্ধার করতে হয়েছে বলে সংবাদ সংস্থাগুলি জানিয়েছে।

আরও পড়ুন
স্টোভ থেকে আগুন নিউ ইয়র্কের আবাসনে, মৃত ১২

এক আবাসিককে তাঁর দুই ছেলেমেয়ে এবং কুকুর-সহ উদ্ধার করা হয়। যখন আগুন লাগে, তিনি তখন কর্মস্থলে যাওয়ার উদ্দেশে তৈরি হচ্ছিলেন। ঠিক সেই সময়েই তিনি পোড়া গন্ধ পান। ওই মহিলা সংবাদ সংস্থা এবিসিকে বলেন, ‘‘পোড়া গন্ধ পেয়েই আমি আমার স্বামী ও সন্তানদের ঘুম ভাঙাই। বলি, আবাসনে আগুন লেগেছে বোধহয়। এর পরেই আমরা দরজা খুলে বাইরে বেরিয়ে আসি। দরজা খুলতেই গোটাটাই কালো ধোঁয়া।’’ এর পর দমকল কর্মীরা ওই পরিবারকে উদ্ধার করে। তবে, নিউ ইয়র্কে প্রবল ঠান্ডা এবং হাওয়ার মধ্যে উদ্ধারকারীদের কাজ করতে অসুবিধে হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন
রাতারাতি বন্ধ অনুদান, প্রবল চাপে পাকিস্তান, তলব মার্কিন দূতকে

এর আগে গত সপ্তাহেই স্টোভ নিয়ে খেলতে গিয়ে এই ব্রঙ্কস-এরই বেলমন্ট এলাকার ২৩৬৩ প্রসপেক্ট অ্যাভিনিউ আবাসনে ভয়াবহ আগুন লেগে দুই শিশু-সহ অন্তত ১২ জন প্রাণ হারিয়েছিলেন। অগ্নিকাণ্ডে চার জন গুরুতর জখমও হন। পরে জানা যায়, ওই আবাসনের এক তলায় একটি বাচ্চা স্টোভ নিয়ে খেলছিল। সেখান থেকেই দুর্ঘটনাবশত আগুন ছড়িয়ে পড়ে গোটা বাড়িতে।

তারও বহু বছর আগে ১৯৯০ সালের মার্চে ব্রঙ্কস-এ একটি নাইটক্লাবে ভয়াবহ আগুনে মারা যান ৮৭ জন।