ভয়াবহ আগুনে ছাড়খাড় হয়ে গেল মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালা লামপুরের একটি ইসলামিক বোর্ডিং স্কুল। বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ছ’টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে দারুল কোরান ইত্তিফাকিয়াহ নামের একটি ‘তাহফিজ’ বোর্ডিং স্কুলে। ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ২৫ জনের। এদের মধ্যে বেশির ভাগই পড়ুয়া বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: কিম-বধে যুদ্ধং দেহি সোল-ও

আগুন লাগার কিছু ক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দমকল বাহিনী। আসে উদ্ধারকারী দলও। নিহতদের মধ্যে ২৩ জন পড়ুয়া এবং দু’জন ওয়ার্ডেন রয়েছেন বলে জানিয়েছে মালয়েশিয়ার দমকল ও উদ্ধারকারী দফতর। পড়ুয়াদের বয়স ৫-১৮-র মধ্যে। গুরুতর আহত অবস্থায় আরও সাত জনকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এঁদের বেশির ভাগেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক। এখনও পর্যন্ত ১১ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। দমকলের এক আধিকারিক বলেন, “স্কুলে অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থা সঠিক ছিল কি না খতিয়ে দেখা হবে। দেশে গত ২০ বছরে এই রকম ভয়াবহ আগুন লাগেনি।”

আরও পড়ুন: পা পিছলে আগ্নেয়গিরিতে শিশু, বাঁচাতে গিয়ে মৃত্যু বাবা-মায়েরও

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া বেশ কিছু ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, তিন তলা স্কুলটির উপর তলা দাউদাউ করে জ্বলছে। সেই সময়ে বেশির ভাগ পড়ুয়া ঘুমিয়ে ছিল বলে জানা গিয়েছে। দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছনয় ঘণ্টা খানেকের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয় বলে জানিয়েছেন দমকলের এক আধিকারিক। দুর্ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নজীব রাজাক টুইটারে জানান, “এই ধরনের দুর্ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে না ঘটে সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে। নিহতদের পরিবারের পাশে রয়েছে সরকার।”