ঘুষ দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন স্যামসাং সংস্থার প্রধান জেওয়াই লি। এই ঘুষ মামলাতেই কিছু দিন আগে দেশের প্রেসিডেন্টকে ইমপিচ করেছিল দক্ষিণ কোরিয়ার পার্লামেন্ট। লি-কে নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরে জল্পনার পারদ চড়ছিল দক্ষিণ কোরিয়ায়। শেষমেশ আদালতের নির্দেশে শুক্রবার ভোরে লি-কে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল এবং মেমরি চিপস প্রস্তুতকারক স্যামসাং সংস্থার প্রধান গ্রেফতার হওয়ার পরই দক্ষিণ কোরিয়ার শেয়ার বাজার বড়সড় ধাক্কা খায়। বাজার খোলার সঙ্গে সঙ্গে স্যামসাংয়ের দাম পড়তে শুরু করে।

পুলিশি হেফাজতের পর দক্ষিণ কোরিয়ার অন্যতম ধনী পরিবারের থেকে আসা ৪৮ বছর বয়সী লি সিওল ডিটেনশন সেন্টারের একটি সেলের মধ্যে রাত কাটাচ্ছেন বলে সূত্রের খবর। একটি টেলিভিশন এবং টেবিল ছাড়া তাঁর কক্ষে আর কিছু নেই বলে জানা গিয়েছে।

বেশ কিছু দিন ধরে স্যামসাং কর্তাকে জেরা করছিল পুলিশ। উপযুক্ত প্রমাণের অভাবে গত মাসে গ্রেফতার হওয়া থেকে বেঁচেও যান তিনি। কিন্তু নতুন করে সরকার পক্ষের আইনজীবী বেশ কিছু প্রমাণ দাখিল করে গ্রেফতারের আর্জি জানায় আদালতের কাছে। যদিও স্যামসাং কর্তৃপক্ষ সমস্ত ধরনের দুর্নীতির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে দাবি করেছে, তারা কোনও অন্যায় করেনি।

আরও পড়ুন- প্রায় মস্তিষ্কহীন জন্মানো এই শিশুটি গুনতেও শিখেছে, বিস্মিত চিকিত্সকরা