ভারতের সঙ্গে তারা সুসম্পর্ক চায় বলে জানাল তালিবান। আমেরিকা ছাড়া আর সব দেশের সঙ্গেই সম্পর্ক ভাল করতে তারা আগ্রহী। তবে তালিবান মুখপাত্র জাবিউল্লা মুজাহিদের দাবি, দেশের নিয়ন্ত্রণ থাকা উচিত আফগানদের হাতেই। বিদেশি শক্তিকে দেশ থেকে সরতে হবে। তাঁর দাবি, তালিবান হামলার লক্ষ্য আফগান সেনাবাহিনীই। দেশের সাধারণ মানুষ নয়।

অথচ নতুন বছরের প্রথম মাসেই এক সপ্তাহের ব্যবধানে কাবুলে পর-পর দু’টি ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে তারা। প্রথমটি ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে। ২০ জানুয়ারি ১২ ঘণ্টার তাণ্ডবে প্রাণ গিয়েছিল ২৫ জনের। তার রেশ মিটতে না মিটতেই বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের পুরনো ভবন লাগোয়া একটি চেকপোস্ট। ঘটনাস্থলটি থেকে আবার তালিবানের সঙ্গে মধ্যস্থতাকারী ‘পিস কাউন্সিল’-এর দফতরও ঢিল ছোড়া দূরত্বে। প্রশাসনের দাবি, ওই দফতরই নিশানা ছিল জঙ্গিদের। হামলায় নিহত ৯৫, আহত ১৫০। ছাড় পায়নি শিশুরাও।

তালিবান মুখপাত্রের দাবি, দেশের সাধারণ মানুষ তাদের শত্রু নয়। তারা যা করছে, তা দেশের কথা ভেবেই। তালিবান তা হলে শান্তি প্রক্রিয়ায় যোগ দিচ্ছে না কেন? জাবিউল্লার বক্তব্য, ‘‘শান্তি আমরাই আনব।’’