মস্কোর সংবাদ সংস্থার মাধ্যমে আমেরিকাকে যুদ্ধের হুমকি দিলেন উত্তর কোরিয়ার বিদেশমন্ত্রী। বুঝিয়ে দিলেন পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে ওয়াশিংটনের যুদ্ধটা অনিবার্যই।

উত্তর কোরিয়ার বিদেশমন্ত্রী রি ইয়ং হো বুধবার রুশ সংবাদ সংস্থা ‘ইতার তাস’কে বলেছেন, ‘‘যুদ্ধের সলতেটা পাকিয়েছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার খেসারত তো তাকে দিতেই হবে। আগুনে পুড়ে গিয়েই মূল্য চোকাতে হবে ওয়াশিংটনকে।’’

গত কয়েক মাসে বেশ কয়েক বার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করেছে পিয়ংইয়ং। ভূগর্ভে অত্যন্ত শক্তিশালী হাইড্রোজেন বোমাও ফাটিয়েছে পরীক্ষামূলক ভাবে। শুধু তাই নয়, ওই সব পারমাণবিক অস্ত্র দিয়ে বেশ কয়েকটি মার্কিন শহর গুঁড়িয়ে দেওয়ারও হুমকি বহু বার দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। পাল্টা হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। তার প্রেক্ষিতে সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকার ভয়াবহ যুদ্ধের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

গতকাল রুশ সংবাদ সংস্থাকে উত্তর কোরিয়ার বিদেশমন্ত্রী রি ইয়ং হো বলেছেন, ‘‘আমরা তো আত্মরক্ষার স্বার্থেই পরমাণু অস্ত্র বানাচ্ছিলাম। সে সবের পরীক্ষানিরীক্ষা করছিলাম। কিন্তু রাষ্ট্রপুঞ্জে যে ভাবে উত্তেজিত হয়ে উন্মাদের সুরে আমাদের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন ট্রাম্প, তাতে বোঝা যাচ্ছে, যুদ্ধের সলতেটা উনিই পাকিয়েছেন। শেষ কাজটা এ বার আমাদেরই করতে হবে। তাতে আগুনে পুড়তেই হবে আমেরিকাকে।’’

আরও পড়ুন- নতুন রূপ নিয়ে হাজির ডেঙ্গি, বাড়ছে আতঙ্ক​

আরও পড়ুন- জোর করে ভক্তদের নির্বীজকরণ: সিবিআই জেরার মুখে রাম রহিম​

এর আগেও ট্রাম্পকে উত্তর কোরিয়ার বিদেশমন্ত্রী ‘দুষ্ট প্রেসিডেন্ট’ বলেছিলেন।

কিন্তু গতকাল রি যে সুরে কথা বলেছেন রুশ সংবাদ সংস্থার সঙ্গে, তাতে স্পষ্ট ওয়াশিংটনের সঙ্গে পিয়ংইয়ংয়ের যুদ্ধটা অনিবার্যই।

রি বলেছেন, ‘‘আমরা আমাদের লক্ষ্যের শেষ বিন্দুতে পৌঁছে গিয়েছি। যাতে আমেরিকার সঙ্গে সত্যি সত্যিই একটা শক্তির ভারসাম্য থাকে। পরমাণু অস্ত্রশস্ত্র বানানো ও তার পরীক্ষানিরীক্ষা থেকে সরে আসার জন্য কোনও আলোচনায় বসতে আমরা রাজি নই।’’