ইজরায়েলি সেনার গুলিতে জখম তরুণের মৃত্যু হয়েছে। জামাল মুসলি নামে কুড়ি বছরের এই ছেলেটি গাজার আল-বুরেইজ উদ্বাস্তু শিবিরে থাকত।

৬ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জেরুসালেম নিয়ে বিতর্কিত ঘোষণার পর থেকে লাগাতার সংঘর্ষে এই নিয়ে ১৩ জন প্যালেস্তাইনির মৃত্যু হল। গতকাল ‘ক্রোধ দিবস’-এর ডাক দিয়েছিল হামাস ও ইসলামিক জিহাদ গোষ্ঠী।  ইজরায়েল-গাজা সীমান্তে মারমুখী বিক্ষোভকারীদের থামাতে গুলি চালায় ইজরায়েলি সেনা। জখম হন ৫০ জনেরও বেশি প্যালেস্তাইনি। তাঁদের মধ্যে ছিলেন জামালও।

জেরুসালেম নিয়ে আন্তর্জাতিক টানাপড়েন অব্যাহত। আজ গুয়াতেমালা জানিয়েছে, তেল আভিভ থেকে তাদের দূতাবাস জেরুসালেমে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার যে সিদ্ধান্ত তারা নিয়েছে, তা চূড়ান্ত, এবং কোনও পরিবর্তন হবে না। ট্রাম্প মার্কিন দূতাবাস জেরুসালেমে সরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরে গুয়াতেমালাই একমাত্র দেশ, যারা একই পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

অন্য দিকে, রাষ্ট্রপুঞ্জের শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো থেকে সরে যাওয়ার ইজরায়েলি সিদ্ধান্ত ‘অত্যন্ত দুঃখজনক’ বলে মন্তব্য করেছে ইউনেস্কো। সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল অড্রে আজুলে বলেন, ‘‘১৯৪৯ সাল থেকে ইউনেস্কোর সদস্য-দেশ ইজরায়েল। তাদের স্থান এই সংস্থার বাইরে নয়, ভেতরে। আশা করি, তারা এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করবে।’’ ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইজারেয়েলের রাজধানী ঘোষণা করার পরে আমেরিকার বিরুদ্ধে সরব হয়েছিল রাষ্ট্রপুঞ্জ। তার প্রতিবাদেই ইজরায়েল ইউনেস্কো থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।