একজন সাংবাদিক বৈঠকে এসে তাঁর ভরপুর প্রশংসা করে যাচ্ছেন। অন্য জন ড্রেসিংরুমে ঢুকে তাঁকে জড়িয়ে ধরে অভিনন্দন জানাচ্ছেন। ঋদ্ধিমান সাহা এখন সবার প্রিয়। বিরাট কোহালি থেকে মহেন্দ্র সিংহ ধোনি, সবাই যেন তাঁর কীর্তিতে মুগ্ধ।

সোমবার টেস্ট শেষ হওয়ার পরে জেএসসিএ স্টেডিয়ামের মিডিয়া রুমে বসে ভারত অধিনায়ককে ঋদ্ধির কথা জিজ্ঞাসা করতেই তিনি বলেন, ‘‘যখনই ওকে দলের দরকার হয়, তখনই ঋদ্ধির কাছ থেকে কিছু না কিছু পাওয়া যায়। এই ম্যাচেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। আমরা যে এই ম্যাচে জেতার জায়গায় চলে এসেছিলাম, সেটা শুধুমাত্র পূজারার সঙ্গে ওর পার্টনারশিপের জন্য।’’

সোমবার স্টেডিয়ামে এসেছিলেন প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনিও। জানা গিয়েছে, খেলার পরে তিনি ভারতীয় ড্রেসিংরুমে ঢুকে ঋদ্ধিকে জড়িয়ে ধরেন। ড্রেসিংরুমে থাকা এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ঋদ্ধিকে অভিনন্দন জানিয়ে ধোনি বলেন, ‘‘দারুণ খেলেছিস। চালিয়ে যা।’’

তার পরেও কিছুক্ষণ দু’জনের মধ্যে কথাবার্তা হয়। ধোনি টেস্ট  থেকে অবসর নিয়েছেন আর ঋদ্ধিমান ওয়ান ডে দলে নেই। তাই দু’জনের মধ্যে বড় একটা দেখা-সাক্ষাৎ হয় না। বহুদিন দুই উইকেটকিপার এক জায়গায় না হওয়ায় বোধহয় অন্যদের চেয়ে ঋদ্ধির সঙ্গে একটু বেশিই সময় কাটান ধোনি।

হাহাকার: কাছাকাছি এসেও জেতা হল না রাঁচীতে। পাহাড়ের কোলে ধর্মশালায় শেষ টেস্টেই নিষ্পত্তি হবে সিরিজের। পিটিআই

প্রাক্তন অধিনায়ক যেমন বাংলার উইকেটকিপারে মুগ্ধ, ঋদ্ধিমানের কথা শুনে বর্তমান ক্যাপ্টেনেরও চোখ-মুখ উজ্জ্বল হয়ে উঠল। তিনি মনে করেন, ঋদ্ধির আরও প্রশংসা প্রাপ্য। বলেন, ‘‘ওর যথেষ্ট কৃতিত্ব আছে। অথচ ওকে নিয়ে বেশি চর্চা হয় না। ওর কিন্তু এটা প্রাপ্য। দলের জন্য ও সব কিছু করতে রাজি। ওকে যেখানে ব্যাট করতে বলা হয়, সে অশ্বিনের আগে হোক বা পরে, সেখানেই নামার জন্য তৈরি।’’

রাঁচীতে ঋদ্ধির পারফরম্যান্সে বেশ খুশি কোহালি সাংবাদিকদের আরও বলেন, ‘‘ও রকম চাপের মধ্যেও ও যে ভাবে খেলল, তাতে আমি খুশি হয়েছি। ওকে দলের যে কোনও দায়িত্ব দেওয়া হোক, সে ইতিবাচক বা রক্ষণাত্মক, ও সেই দায়িত্ব নিতে কখনও দু’বার ভাবেনি। দলে ওর মতো একটা ছেলে আছে বলে খুব ভাল লাগে।’’

ঋদ্ধির পাশাপাশি বাংলার আরও এক ক্রিকেটারের ওপর ভরসা রাখতে চান কোহালি। তিনি মহম্মদ শামি। সোমবার বিজয় হজারে ট্রফির ফাইনালে চার উইকেট নেওয়ার পরে ধর্মশালায় শেষ টেস্টে শামির ফেরার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই ব্যাপারে ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘‘আমরাই ওকে বিজয় হজারে ফাইনালে খেলতে বলেছিলাম, যাতে ম্যাচ প্র্যাকটিস পেতে পারে। এখনও নির্বাচকদের সঙ্গে কথা হয়নি আমার। শেষ টেস্টে শামিকে খেলানো যায় কি না দেখতে হবে।’’