তিনি বাঙালি আইএএস। দীর্ঘ দিন কাজ করেছেন গুজরাতে, সামলেছেন রাজ্যের অন্যতম শীর্ষ প্রশাসনিক পদ। নরেন্দ্র মোদী যখন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী, প্রভাতকুমার ঘোষ তখন গুজরাতের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সচিব। মোদীর সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতাও ছিল সর্বজনবিদিত। এখনকার গুজরাত, আর তখনকার গুজরাতে ফারাক কোথায়? মুখ খুললেন মোদীর আস্থাভাজন এই বাঙালি।

প্রায় ১৪ বছর টানা গুজরাতে মুখ্যমন্ত্রীত্ব করেছেন নরেন্দ্র মোদী। সাড়ে তিন বছর আগে রাজ্যের ভার অন্যদের হাতে সঁপে মোদী দিল্লি চলে গিয়েছেন। এই সাড়ে তিন বছরে দু’জন মুখ্যমন্ত্রীকে দেখে ফেলেছে গুজরাত। মোদীর উত্তরসূরি হিসাবে ভার নিয়েছিলেন আনন্দিবেন পটেল। কিন্তু, মাঝপথেই তাঁকে সরতে হয়েছে। বিজয় রূপানিকে মুখ্যমন্ত্রী পদে বসিয়ে নির্বাচনে যেতে হয়েছে বিজেপিকে।

কিন্তু রূপানিও কি ততটা জনপ্রিয়, যতটা ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মোদী? গুজরাতের বাঙালি প্রশাসক জানাচ্ছেন, জনপ্রিয়তায় মোদীর ধারেকাছে আসেন না আনন্দিবেন, বিজয় রূপানিরা। কেন জনপ্রিয় নন এই মুখ্যমন্ত্রীরা, কেন জনপ্রিয় ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মোদী, বিষদে ব্যাখ্যা করলেন রাজ্যের অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত মুখ্যসচিব। ভিডিওয় জেনে নিন মোদীর সাফল্যের সেই মন্ত্র।

গুজরাত নির্বাচন নিয়ে সব খবর পড়তে এখানে ক্লিক করুন।