ভক্তদের অজান্তেই নির্বীজকরণের অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। বছর দুয়েক আগে এ নিয়ে মামলাও শুরু হয়েছিল। এ বার ওই মামলায় ডেরা সচ্চা সৌদা প্রধান গুরমিত রাম রহিম সিংহের বয়ান রেকর্ড করল সিবিআই। আদালতের বিশেষ অনুমতি নিয়ে বুধবার রোহতকের জেলে রাম রহিমের বয়ান রেকর্ড করেন সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকেরা।

আরও পড়ুন

চাঁদ নামাবেন মোদী! তীক্ষ্ণ হুল রাহুলের
‘রাজনীতিতে পরিবারতন্ত্র চলতে পারে না ’: মুকুল

‘কাঁচরাপাড়ার কাঁচা ছেলের হাত থেকে দল বাঁচল’: পার্থ

সিরসায় ডেরার এক ভক্ত হংসরাজ চৌহান অভিযোগ করেন, গত  ২০০০ সালে তাঁর নির্বীজকরণ করানো হয়েছিল। এর বছর দুয়েক পরে ২০১২-তে আদালতের দ্বারস্থ হন হংসরাজ। আদালতের কাছে একটি আবেদনে সে জন্য সিবিআই তদন্ত-সহ ক্ষতিপূরণের দাবি করেন তিনি। সিবিআইয়ের মুখপাত্র এ কথা জানিয়েছেন। অভিযোগে হংসরাজের দাবি, ডেরার প্রায় ৪০০ ভক্তকে জোর করে নির্বীজকরণ করানো হয়েছে। তিনি আরও জানিয়েছেন, হরিয়ানা, পঞ্জাব ও রাজস্থান-সহ বিভিন্ন রাজ্যের ভক্তদের নির্বীজকরণ করানো হয়েছিল। তাতে নাকি রাম রহিমের দাবি ছিল, ‘নির্বীজকরণের মাধ্যমেই ভক্তদের ঈশ্বরের উপলব্ধি হবে।’

পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের নির্দেশে গত ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে এ নিয়ে রাম রহিমের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে সিবিআই। রাম রহিমের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র ছাড়াও একাধিক অভিযোগ আনা হয়।