ফের বড়সড় জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টা জম্মু-কাশ্মীরে। ফের লক্ষ্য সেই উরি। সন্ত্রাসবাদীদের ছক অবশ্য ভেস্তে দিল ভারতীয় বাহিনী। প্রবল গুলির লড়াইয়ে মৃত্যু হল ৫ জঙ্গির। গত ২৪ ঘণ্টায় এই নিয়ে তৃতীয় বার জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টা হল উপত্যকায়। তাই নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর নজরদারি আরও কঠোর করা হচ্ছে।

যে জঙ্গিরা এ দিন নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের উরি সেক্টরে ঢোকার চেষ্টা চালাচ্ছিল, তাদের কাছে ভারী এবং অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র ছিল বলে সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে। সেনাবাহিনীর মুখপাত্র রাজেশ কালিয়া সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘‘নিয়ন্ত্রণরেখায় মোতায়েন জওয়ানরা দেখতে পান, ও পার থেকে কিছু জঙ্গি এ দিকে ঢোকার চেষ্টা করছে। জঙ্গিদের লক্ষ্য করে সেনা গুলি চালায়, জবাবে জঙ্গিরা স্বয়ংক্রিয় অস্ত্রশস্ত্র থেকে গুলি ছুড়তে শুরু করে।’’ তবে অনুপ্রবেশের চেষ্টা শেষ পর্যন্ত সফল হয়নি। সেনাবাহিনীর গুলিতে ৫ জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে বলে সেনার তরফে জানানো হয়েছে।

অনুপ্রবেশের চেষ্টা গত ১৫ দিনে কয়েক গুণ বেড়েছে। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর তৎপরতাও বেড়েছে ভারতীয় বাহিনীর। —ফাইল চিত্র।

২০১৬-র সেপ্টেম্বরে আন্তর্জাতিক শিরোনামে এসেছিল উরি। ভয়ঙ্কর জঙ্গি হামলার মুখে পড়েছিল উরির সেনা ছাউনি। সেই জঙ্গি হামলার পর পাকিস্তান আন্তর্জাতিক মহলে কোণঠাসা তো হয়েছিলই। হামলার জবাব দিতে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকও চালিয়েছিল ভারতীয় সেনা, গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল পাক অধিকৃত কাশ্মীরের একাধিক জঙ্গি শিবির। তার পরেও উপত্যকায় অশান্তি তৈরির চেষ্টা থেকে বিরত হয়নি পাকিস্তান। বরং জঙ্গি অনুপ্রবেশ ঘটানোর চেষ্টা গত কয়েক সপ্তাহে আরও বাড়ানো হয়েছে। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর প্রায় রোজই ভয়ঙ্কর গোলাগুলি চলছে দু’পক্ষের মধ্যে। ভারতের অভিযোগ, জঙ্গিদের কভার ফায়ার দিতেই পাকিস্তান গোলাগুলি চালানো শুরু করছে। প্রতিটি ক্ষেত্রেই পাকিস্তানকে যোগ্য জবাবও ভারত দিচ্ছে। শুক্রবারও জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টা ভারতীয় বাহিনী অত্যন্ত তৎপরতার সঙ্গে রুখে দিয়েছে।

আরও পড়ুন: সব সময়ে জিপে বাঁধা হয় না: সেনাপ্রধান

শেষ ২৪ ঘণ্টায় এই নিয়ে তিন বার উপত্যকায় জঙ্গি অনুপ্রবেশ ঘটানোর চেষ্টা করল পাকিস্তান। প্রতিটি ক্ষেত্রেই ভারতীয় বাহিনী কড়া জবাব দিয়েছে। কিন্তু গত ১৫ দিনে জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টা কয়েক গুণ বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগও বাড়ছে।