আকাশসীমা পেরিয়ে ভারতীয় ড্রোনের চিনে ঢুকে পড়ার কথা মেনে নিল সেনাবাহিনী।  তবে একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, যান্ত্রিক ত্রুটিতে নিয়ন্ত্রণ হারানোর কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে। আন্তর্জাতিক সীমান্তের কাছে ভবিষ্যতে এনিয়ে আরও বেশি সতর্ক থাকতেও বলা হয়েছে বাহিনীকে।

এ দিন সকালে চিন দাবি করেছিল, সে দেশের আকাশপথের সীমা লঙ্ঘন করেছে ভারতীয় ড্রোন। ইন্দো-চিন সীমান্ত পেরিয়ে একটি ‘আনম্যানড এরিয়াল ড্রোন’ (ইউএভি) ঢুকে পড়ে এবং ভেঙে পড়ে। তা নিয়ে চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল চিন। চিনের সেনাবাহিনীর এক কর্তা ঝাং শুইলি বলেন, “ভারতের এই পদক্ষেপের ফলে সীমান্ত এলাকায় চিনের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘিত হয়েছে। দেশের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা রক্ষার জন্য আমরা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।”

ভারতের দাবি, ওই ঘটনার পরপরই নির্দিষ্ট প্রোটোকল মেনে চিনকে এ নিয়ে সতর্ক করে সীমান্তরক্ষীরা। সেই সঙ্গে ওই ড্রোনটির অবস্থান খুঁজে বার করতে বলে। এর উত্তরে ওই ড্রোনটির অবস্থান জানায় চিন। তবে ঠিক কী কারণে এই গোলযোগ ঘটল তা খতিয়ে দেখছে ভারতীয় সেনা।

আরও পড়ুন

আকাশসীমা ভেঙে ঢুকেছে ভারতীয় ড্রোন: চিন

‘লভ জিহাদ’ বিদ্বেষ! মালদহের যুবককে কুপিয়ে, পুড়িয়ে খুন রাজস্থানে

যৌন নির্যাতন? কী বলছে হাসপাতালের রিপোর্ট?

বৃহস্পতিবার দুপুরে একটি বিবৃতিতে এ দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানায়, গোটা ঘটনাটাই অনিচ্ছাকৃত। এবং তা নিয়ে তদন্তও করা হবে। সীমান্ত এলাকায় নির্ধারিত প্রোটোকল যাতে ভাঙা না হয়, সে বিষয়ে সেনাকে আরও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

 

 

সেনার এক আধিকারিক বলেন, “ভারতীয় সীমান্ত এলাকায় রুটিনমাফিক মহড়ার সময় যান্ত্রিক ত্রুটি ঘটে। সে কারণেই গ্রাউন্ড কন্ট্রোলের সঙ্গে ওই ইউএভি-টির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এর পর সেটি সিকিমের কাছে লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল (এলএসি) পার হয়ে যায়।”