ত্রিপুরায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী প্রচার শুরুর দিনই অস্ত্র-সহ ধরা পড়ল এক ব্যক্তি। ত্রিপুরা পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে ধৃত ওই ব্যক্তির কাছ থেকে তিনটি পিস্তল ও পাঁচশো রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

পশ্চিম জেলার পুলিশ সুপার অভিজিৎ সপ্তর্ষি জানিয়েছেন, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ত্রিপুরা পুলিশ এ দিন আগরতলাগামী ত্রিপুরা সুন্দরী এক্সপ্রেসের এক যাত্রীর কাছ থেকে ওই অস্ত্র উদ্ধার করেছে।

এ দিন সকাল থেকেই আমতলী থানার আধিকারিক প্রণব সেনগুপ্ত এবং জি আর পি থানার আধিকারিক কিশোর দাসের নেতৃত্বে সাদা পোশাকের পুলিশ স্টেশন চত্বরে মোতায়েন ছিল। ওই ব্যক্তি ট্রেনের কোন কামরায় থাকবে তারও সুনির্দিষ্ট খবর ছিল পুলিশের কাছে। ট্রেনটি আগরতলা স্টেশনে আসার পর সাদা পোশাকের পুলিশ গিয়ে ওই কামরাটি ঘিরে ফেলে। হাতেনাতে ধরা হয় অভিযুক্তকে। স্টেশন চত্বরেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার ব্যাগ থেকে তিনটি বিদেশি পিস্তল, ৫০০ রাউন্ড গুলি-সহ একটি ধারালো ছুরিও উদ্ধার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন
মাথা না তোলে খুদে পাকিস্তান! উদ্বিগ্ন দিল্লি

উদ্ধার করা অস্ত্রশস্ত্র। —নিজস্ব চিত্র।

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম নরেশ চাকমা। নরেশ ত্রিপুরার গোমতী জেলার নতুনবাজার থানা এলাকার যতনবাড়ির বাসিন্দা। এসপি জানিয়েছেন, এ দিন নরেশকে আদালতে তোলা হবে। ধৃতকে পুলিশের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবেদন করা হবে।

আরও পড়ুন
রাজ্যকে বঞ্চনার অভিযোগ, বামেদের বন্‌ধে স্তব্ধ অন্ধ্রপ্রদেশ

 

এই ধরনের খবর আপনার ইনবক্সে সরাসরি পেতে এখানে ক্লিক করুন

পুলিশ সূত্রের খবর, এর আগেও অস্ত্র-সহ ধরা পড়েছে নরেশ। তার বিরুদ্ধে এ নিয়ে অসমে মামলাও ঝুলছে। প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ জানতে পেরেছে, ওই অস্ত্রগুলি যতনবাড়িতে সরবরাহ করার কথা ছিল নরেশের। রাজ্যে বিধানসভার নির্বাচনের প্রচারে এ দিনই আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই সফরের আগে ঠিক কী উদ্দেশ্যে ওই অস্ত্র সরবরাহ করছিল নরেশ তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।