দেশজুড়ে যে বেকারি গলার কাঁটা হয়ে আছে নরেন্দ্র মোদীর, তাঁর সেনাপতি অমিত শাহও যে সমস্যা কবুল করছেন, সে অস্বস্তি ঢাকতে পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অঙ্ককেই আজ ঢাল করলেন প্রধানমন্ত্রী।

লোকসভায় আজ কর্মসংস্থান নিয়ে বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী চার অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যের পরিসংখ্যান তুলে ধরেন।  জানান, পশ্চিমবঙ্গ, কর্নাটক, ওড়িশা, কেরল গত ৩-৪ বছরে ১ কোটি ‘রোজগার’ (কর্মসংস্থান) দিয়েছে। তা এই রাজ্যগুলিরই দেওয়া হিসেব। বিরোধীদের প্রতি মোদীর প্রশ্ন, ‘‘এ কি দেশের রোজগার নয়? নাকি এই পরিসংখ্যানও আপনারা খারিজ করবেন?’’

ক’দিন আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে তৃণমূল জমানায় ৮১ লক্ষ কর্মসংস্থানের দাবি করেছিলেন। যা নিয়ে বিধানসভাতেও হট্টগোল করে বিরোধীরা। যদিও প্রধানমন্ত্রীর কথা শুনে তৃণমূলের ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, ‘‘নরেন্দ্র মোদীর এই কৃতিত্ব নেওয়ার চেষ্টা আমাদেরই অবস্থানকে মজবুত করল। সরকার মুখে যুক্তরাষ্ট্রীয় ধর্মের কথা বলে আসলে রাজ্যকে কৃতিত্ব দিতে চায় না। রাজ্যের গলা টিপতে চায়।’’

আজ সংসদের দুই সভাতেই প্রধানমন্ত্রীর কথা শুনে সভাকক্ষ ত্যাগ করে তৃণমূল। তৃণমূলের অভিযোগ, এ শুধুই ভাষণ, জনতার সমস্যার ধারেকাছে ঘেঁষেননি প্রধানমন্ত্রী।