দুধ খাওয়ার জন্য বায়না ধরেছিল বছর তিনেকের মেয়েটি। ‘বিরক্ত’ হয়ে কাস্তে দিয়ে মেয়েটির গলার নলি কেটে খুন করলেন মা! বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রদেশের ধার গ্রামের ঘটনা।

বিষয়টি প্রতিবেশীদের নজরে আসার পরই পুলিশে খবর দেন। তল্লাশি চালিয়ে পুলিশ পাশেরই একটি গ্রাম থেকে ওই মহিলাকে গ্রেফতার করে।

প্রতিবেশীরা জানান, ওই দিন মায়ের কাছে দুধ খেতে চেয়ে বায়না ধরেছিল মেয়েটি। মহিলা তখন রান্নাঘরে কাজে ব্যস্ত ছিলেন। দুধ না পেয়ে মেয়েটি কান্না জুড়ে দেয়। অনেক ক্ষণ ধরেই মেয়েটি কাঁদছিল। তার পরই সব চুপ। মেয়েটির আর কোনও আওয়াজ পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: পাক ‘সুন্দরী’র ফাঁদে পড়ে তথ্য পাচার, গ্রেফতার বায়ুসেনা কর্তা

আরও পড়ুন: মানিক ফেলে হীরা নিন, বললেন মোদী

পুলিশ জানিয়েছে, এক প্রতিবেশী মহিলাকে ঘরে তালা দিয়ে বেরিয়ে যেতে দেখেন। সঙ্গে মেয়েটি না থাকায় সন্দেহ হয় তাঁর। তিনি অন্য প্রতিবেশীদের ডেকে আনেন। মহিলার বাড়ির দরজার তালা ভেঙে ভিতরে ঢুকেই চমকে যান তাঁরা। দেখেন মেঝেতে পড়ে রয়েছে মেয়েটির নিথর দেহ। চারপাশ রক্তে ভেসে যাচ্ছে। সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা পুলিশে খবর দেন।

এক প্রতিবেশী জানান, মেয়েটা অনেক ক্ষণ ধরেই চেঁচাচ্ছিল। তার পরই হাঠাত্ সব কেমন যেন ঠান্ডা হয়ে যায়। তার পরই ওই মহিলাকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে দেখা যায়। তখনই সন্দেহ হয় কিছু একটা ঘটেছে। এবং সন্দেহটা যে অমূলক ছিল না ওই মহিলার ঘরে ঢুকেই সেটা টের পাওয়া যায়।