মৃত্যুদণ্ডের আদেশপ্রাপ্ত ভারতীয় নৌসেনার প্রাক্তন অফিসার কুলভূষণ যাদবের সঙ্গে তাঁর স্ত্রীকে দেখা করার অনুমতি দিল পাক সরকার।

পাক বিদেশ মন্ত্রক আজ এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘‘সম্পূর্ণ মানবিক কারণে এই সিদ্ধান্ত। কম্যান্ডার কুলভূষণ যাদবের স্ত্রী যাতে পাকিস্তানে এসে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে পারেন, সেই বন্দোবস্ত করা হবে। ইসলামাবাদের ভারতীয় দূতাবাসকে বিষয়টি লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।’’ বিবৃতিতে কুলভূষণকে ‘র’-এর গুপ্তচর হিসেবেই উল্লেখ করে বলা হয়েছে, তিনি বেআইনি ভাবে পাকিস্তানে ঢুকেছিলেন। ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থার নির্দেশমাফিক চরবৃত্তি ও জঙ্গি কার্যকলাপের কথা তিনি ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে স্বীকার করেছেন বলেও দাবি করা হয়েছে।

গত এপ্রিলে পাক সামরিক আদালত কুলভূষণকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করে। ভারতের দাবি, কুলভূষণকে অপহরণ করে মিথ্যে অভিযোগে ফাঁসিয়েছে পাকিস্তান। আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালত অবশ্য কুলভূষণের ফাঁসি স্থগিত করেছে। দ্য হেগ শহরের ওই আদালত জানিয়ে দিয়েছে, সেখানে শুনানি শেষ হওয়ার আগে কুলভূষণকে ফাঁসি দিতে পারবে না পাক সরকার। ডিসেম্বরের মধ্যে পাকিস্তানকে কুলভূষণ সংক্রান্ত যাবতীয় নথি জমা দিতে হবে ওই আদালতে।