কার চর তাঁরা!

এই বিতর্কের মধ্যেই আজ পাকিস্তান থেকে ভারতে পা দিলেন হজরত নিজামুদ্দিন দরগার দুই ধর্মগুরু আসিফ নিজামি ও নাজিম নিজামি। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমের একটি অংশের দাবি, ওই দু’জন ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা র’-এর এজেন্ট। বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর পাল্টা দাবি, ওই দুই ধর্মগুরু আসলে পাক এজেন্ট। পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের নির্দেশে এ দেশে ভারত-বিরোধী কাজে লিপ্ত রয়েছেন। স্বামীর দাবি নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চায়নি স্বরাষ্ট্র ও বিদেশ মন্ত্রক। তবে আজ দেশে ফিরে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে দেখা করে তাঁকে ধন্যবাদ জানান দুই ধর্মগুরু।

পাকিস্তানে বসবাসকারী আত্মীয়দের সঙ্গে দেখা করতে গত সপ্তাহে সে দেশে গিয়েছিলেন দিল্লির হজরত নিজামুদ্দিন দরগার ধর্মগুরু সৈয়দ আসিফ নিজামি ও তাঁর ভাইপো নাজিম নিজামি। পাশাপাশি বিভিন্ন সুফি দরগা ঘুরে দেখাও ছিল তাঁদের ভ্রমণসূচিতে। কিন্তু ১৫ মার্চ লাহৌর থেকে প্রায় দেড়শো কিলোমিটার দূরে পাকপত্তনে বাবা ফরিদের দরগা দেখতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান ওই দু’জন। আজ নিজামি পরিবারের তরফে দাবি করা হয়, ওই সময়ে তাঁদের চোখ ঢেকে একটি অজ্ঞাত স্থানে রাখা নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁদের সঙ্গে কোনও খারাপ ব্যবহার করা হয়নি। তবে তাঁরা কেন পাকিস্তানে এসেছেন, ক’দিন থাকবেন, কাদের সঙ্গে দেখা করবেন তা জানতে চান পাক গোয়েন্দারা। নিজামি পরিবারের দাবি, পাকিস্তানের এক উর্দু সংবাদপত্র ওই দু’জনকে র’ এজেন্ট হিসেবে চিহ্নিত করে। তার পরেই তাঁরা আটক করেন পাক গোয়েন্দারা।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে খবর, দু’জন কেন পাকিস্তানের বারেলভি সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে দেখা করেছিলেন তা জানতে চেয়েছিলেন পাক গোয়েন্দারা। পাকিস্তানের ওই সম্প্রদায়টি সরকার-বিরোধী অবস্থানের কারণে তারা ইসলামাবাদের নজরে রয়েছে। এ ছাড়া সিন্ধুপ্রদেশের পাক-বিরোধী মুত্তাহিদা কওমি সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ করার অভিযোগও ওঠে দুই ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে।