দাম না চুকিয়েই নামী কোম্পানির দামি ১৬৬টি মোবাইল ফোন হাতিয়েছিলেন তিনি। অ্যামাজনের কাছ থেকে। তার পর ফোনগুলি হাতে পাননি এই অভিযোগে অ্যামাজনের কাছ থেকে টাকা ফেরৎ চেয়েছিলেন!

অ্যামাজনের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার করা হল দিল্লির দুই বাসিন্দাকে। ধৃতদের নাম শিবম চোপড়া ও তাঁর সঙ্গী সচিন জৈন।

পুলিশ জানাচ্ছে, ক্রেতাদের অর্ডার নিয়ে দিল্লির ত্রিনগরের বাসিন্দা শিবম চোপড়া গত কয়েক মাস ধরে অ্যামাজনের কাছ থেকে স্যামসাং, আইফোন, ওয়ান প্লাসের দামি দামি ১৬৬টি মোবাইল ফোনের ডেলিভারি নিয়েছিলেন। অ্যামাজনকে শিবম জানিয়েছিলেন, ডেলিভারির সময় গিফট ভাউচারের মাধ্যমে তিনি ওই মোবাইল ফোনগুলির দাম মিটিয়ে দেবেন। পরে সচিন জানান, তাঁর সঙ্গে প্রতারণা করেছে অ্যামাজন। তাঁর দেওয়া ১৬৬টি অর্ডারের একটি ফোনও তাঁকে দেওয়া হয়নি এই অভিযোগে তিনিই তাঁর দেওয়া গিফট ভাউচারগুলি ফেরত দিতে বলেন অ্যামাজনকে।

আরও পড়ুন- যুদ্ধ অনিবার্য, পুড়তে হবে আমেরিকাকে, প্রবল হুঙ্কার উত্তর কোরিয়ার​

আরও পড়ুন- হিমাচলে ভোট ৯ নভেম্বর, জানিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন

সন্দেহ হওয়ায় অ্যামাজন সেলার সার্ভিসেস প্রাইভেট লিমিটেডের তরফে সৈয়দ ইশাক পুলিশে অভিযোগ জানান। পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পারে এ বছর এপ্রিল ও মে মাসে ফোন করে অ্যামাজনকে ১৬৬টি মোবাইল ফোনের অর্ডার দিয়েছিলেন শিবম। তার পর যে মোবাইল নম্বর থেকে অ্যামাজনকে ফোন করে অর্ডার দেওয়া হয়েছিল, তার সূত্র ধরে শিবমকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জেরায় শিবম পুলিশকে জানিয়েছে, দিল্লির ত্রিনগরে তাঁর প্রতিবেশী সচিন জৈনের কাছ থেকে ১৫০টি সিম কার্ড কিনেছিলেন তিনি। প্রতিটি সিম কার্ডের জন্য সচিনকে ১৫০ টাকা করে দিতেন শিবম। জৈনের একটি মোবাইল স্টোর রয়েছে।

পুলিশ পরে সচিনকেও গ্রেফতার করে।