প্রচণ্ড বৃষ্টিতে ওডিশায় একটি রেলসেতু ভেঙে যাওয়ায় রবিবার ট্রেন চলাচল বিপর্যস্ত হয়। রেল সূত্রের খবর, পিপলাগড়-রায়গড়া শাখার থেরুভালি ও সিঙ্গাপুর রোড স্টেশনের মধ্যে ৫৮৫ নম্বর রেলসেতুর মাঝবরাবর একটি বড় গার্ডার ভেসে গিয়েছে। ফলে দুপুর থেকে ওই শাখায় ট্রেন চলাচল বিপর্যস্ত হয়ে যায়। বাতিল করতে অনেক মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন।

কয়েক দিন ধরেই প্রবল বর্ষণে নদীতে জল বাড়ছিল। এ দিন ঘটনার সময়ে একটি মালগাড়ি যাওয়ার কথা ছিল ওই লাইনে। প্রহরারত গ্যাংম্যান সেতু ভেঙে পড়তে দেখে কোনও মতে মালগাড়িটি থামানোর ব্যবস্থা করেন। নইলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারত বলে জানান রেলকর্তারা।

দ্রুত মেরামতি শুরু করেছে রেল। পূর্ব উপকূল রেলের কর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান। আসে ক্রেন, ইঞ্জিনিয়ার ও সারাইকর্মীরা। ভুবনেশ্বর, খুরদা রোড, সম্বলপুর ও বিশাখাপত্তনমে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

গত বছরের শেষে পরপর চারটি দুর্ঘটনা রেল মন্ত্রকের মুখ পুড়িয়েছিল। দুর্ঘটনার পরেই রেল বোর্ডের তরফে রেলের সেতু থেকে শুরু করে লাইন, সিগন্যাল ও অন্য সব কিছু পরীক্ষা করে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। নির্দেশে বলা হয়েছিল, ট্রেন চলাচলের সঙ্গে যুক্ত সব কিছু নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করতে হবে। তার পরেও কেন এমন ঘটনা ঘটল, সেই প্রশ্ন উঠছে। কী করে এমন ঘটনা ঘটল, সেটা খতিয়ে দেখতে একটি কমিটি গড়েছে পূর্ব উপকূল রেল।

রেলের খবর, এ দিনের দুর্ঘটনার জেরে বাতিল হয়েছে ১১টি এক্সপ্রেস। আটটি এক্সপ্রেসকে থামানো হয়েছে মাঝপথে। ঘুরপথে চলছে পাঁচটি এক্সপ্রেস। ওডিশা উপকূলে গভীর নিম্নচাপ থাকায় আজ, সোমবারেও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। দক্ষিণের ১০টি জেলা ও উপকূল লাগোয়া ছ’টি জেলায় প্রবল বর্ষণের সম্ভাবনা। ফলে লাইনে জল জমে ট্রেন চলাচল ব্যাহত হতে পারে বলে জানান রেলকর্তারা।