স্বাধীনতা দিবসের আগেই জম্মু-কাশ্মীরের সোপিয়ানে সেনাদের উপর হামলা চালাল জঙ্গিরা। দু’পক্ষের গুলির লড়াইয়ে দুই জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন সেনার এক ক্যাপ্টেন-সহ তিন জন। খতম করা হয়েছে তিন জঙ্গিকেও। আহত জওয়ানদের উদ্ধার করে সেনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই মৃত্যু হয় দুই জওয়ানের। নিহত দুই জওয়ান হলেন সিপাই ইলাইয়া রাজা পি এবং সিপাই গাওয়াই সুমেধ ওয়ামান। ইলাইয়া রাজার বাড়ি তামিলনাড়ুর কান্দানি গ্রামে। ওয়ামান মহারাষ্ট্রের লোনাগ্রা গ্রামের বাসিন্দা।

আরও পড়ুন: অন্তর্ঘাতের তত্ত্ব যোগীর শিবিরে

আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা দুই বোনকে

শনিবারে রুটিন তল্লাশি চালানোর সময় গোপন সূত্রে সেনার কাছে খবর আসে জাইনোপোরা এলাকার আভনিরা গ্রামে কয়েক জন জঙ্গি আশ্রয় নিয়েছে। খবর পেয়েই সেখানে অভিযানে নামে সেনা ও জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের যৌথ বাহিনী। সে সময়ই তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। পাল্টা জবাব দেয় যৌথবাহিনী। দু’পক্ষের মধ্যে দীর্ঘ ক্ষণ গুলির লড়াই চলে। কত জন জঙ্গি লুকিয়ে রয়েছে সে বিষয়ে বিশেষ কিছু জানা যায়নি। তবে গোটা জাইনাপোরা এলাকা ঘিরে তল্লাশি চালাচ্ছে যৌথবাহিনী। সেনা সূত্রে খবর, আভনিরা গ্রামে তল্লাশি চালানোর সময় জওয়ানদের গ্রামবাসীদের বাধার মুখে পড়তে হয়।

শুক্রবার রাতে উত্তর কাশ্মীরের কুপওয়ারার কালারোস সীমান্তবর্তী এলাকায় ৪১ রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের সদর দফতরে হামলা চালায় জঙ্গিরা। প্রথমে সেনা জওয়ানদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। দ্রুত জবাব দেয় সেনা। রাতভর গুলির লড়াই চলে দু’পক্ষের মধ্যে।