তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় ফের নতুন পদক্ষেপ করতে হল আধার কর্তৃপক্ষকে। আধারে সমন্বিত তথ্যের গোপনীয়তা কোনও ভাবেই ক্ষুণ্ণ হওয়া সম্ভব নয় বলে বার বার দাবি করছে কেন্দ্র। তা সত্ত্বেও গোপনীয়তা রক্ষায় নতুন পদক্ষেপ করা হল। ১২ অঙ্কের আধার নম্বরকে সম্ভবত আর খুব সুরক্ষিত মনে করছেন না আধার কর্তৃপক্ষ ইউআইডিএআই। এ বার নতুন ‘ভার্চুয়াল আধার নম্বর’-এর কথা ঘোষণা করা হল।

সিম ভেরিফিকেশনের জন্য বা অন্য নানা পরিষেবার জন্য সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলি গ্রাহকের কাছ থেকে তাঁর ১২ অঙ্কের আধার নম্বর জানতে চাইছে বর্তমানে। কিন্তু আধারে সমন্বিত তথ্যের গোপনীয়তা নিয়ে সংশয় তৈরি হওয়ায় অনেকেই আধার নম্বর দিতে নারাজ। সে কথা মাথায় রেখেই ১৬ অঙ্কের ভার্চুয়াল আইডি-র ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে ইউআইডিএআই জানিয়েছে। ওই নম্বরের মাধ্যমেই নাগরিকের পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারবে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলি।

ভার্চুয়াল নম্বর ব্যবস্থা চালু হয়ে যাওয়ার পরে মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা বা অন্য কোনও কর্তৃপক্ষ যখন গ্রাহকের বা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পরিচয়ের প্রমাণ চাইবেন, তখন ১৬ অঙ্কের নম্বরটি দিলেই চলবে, ১২ অঙ্কের আসল আধার নম্বর দেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। জানিয়েছে ইউআইডিএআই।

১৬ অঙ্কের ভার্চুয়াল নম্বর কী ভাবে ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষা করবে? ইউআইডিএআই জানিয়েছে, ওই নম্বর ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট নাগরিকের নাম, ঠিকানা, ছবি ইত্যাদি সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে। কিন্তু তার চেয়ে বেশি তথ্য মিলবে না। ফলে নিতান্ত ব্যক্তিগত বা গোপনীয় তথ্য অনাকাঙ্খিত হাতে পৌঁছে যাওয়ার আশঙ্কা থাকবে না।

আসল আধার নম্বরের বদলে ভার্চুয়াল নম্বরের ব্যবস্থা হবে ঠিকই। তবে ইউআইডিএআই ওয়েবসাইটে ঢুকে নিজেকেই তৈরি করতে হবে সেই আইডি। —ফাইল চিত্র।

কী ভাবে পাওয়া যাবে ভার্চুয়াল আধার নম্বর? যাঁদের আধার কার্ড রয়েছে, তাঁরা ইউআইডিএআই-এর ওয়েবসাইটে ঢুকে নিজেরাই ১৬ অঙ্কের ভার্চুয়াল নম্বরটি জেনারেট করতে পারবেন। কোন ভার্চুয়াল নম্বরটি কোন আধার নম্বরের সঙ্গে যুক্ত, ইউআইডিএআই কর্তৃপক্ষ তা জানবেন। কিন্তু অন্য কেউ ওই ভার্চুয়াল নম্বর ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির আধার নম্বর জেনে নিতে পারবেন না। ফলে পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার জন্য যেটুকু তথ্য দরকার, তার বাইরে আর কিছু ফাঁস হওয়ার আশঙ্কা থাকবে না।

আরও পড়ুন: সিঙ্গল ব্র্যান্ড রিটেলে ১০০ শতাংশ এফডিআই এ বার সরকারি অনুমোদন ছাড়াই

ইউআইডিএআই জানিয়েছে, ভার্চুয়াল নম্বর কোনও স্থায়ী নম্বর নয়। নির্দিষ্ট সময় অন্তর এই নম্বর অকেজো হয়ে যাবে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি যদি চান, তা হলে স্বয়ংক্রিয় ভাবে অকেজো হওয়ার আগে তিনি নিজেও ওই নম্বরকে অকেজো করতে পারবেন। ইউআইডিএআই ওয়েবসাইটে ঢুকে নতুন নম্বর জেনারেট করে নিলেই পুরনোটা কার্যকারিতা হারাবে। অর্থাৎ কোনও ব্যক্তি যদি চান, তা হলে একবার কাউকে ১৬ অঙ্কের ভার্চুয়াল নম্বরটি জানিয়ে নিজের পরিচয়ের নিশ্চয়তা দেওয়ার পরের মুহূর্তেই তিনি ভার্চুয়াল নম্বরটি বদলে ফেলতে পারবেন।

আরও পড়ুন: বৃদ্ধি-বিপাকে পড়া মোদীর পাশে ফের দাঁড়াল বিশ্বব্যাঙ্ক

১ জুন থেকে সব সংস্থা ভার্চুয়াল আধার নম্বরের ভিত্তিতেই সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পরিচয় যাচাই করতে বাধ্য থাকবে বলে ইউআইডিএআই জানিয়েছে। এই নির্দেশ যে সংস্থা মানবে না, সেই সংস্থাকে জরিমানার মুখে পড়তে হবে বলে জানানো হয়েছে।