১২ মাসের জন্য নির্বাসিত করা হল আফগানিস্তানের উইকেট কিপার মহম্মদ শাহজাদকে। বৃহস্পতিবার আইসিসি তাঁকে নির্বাসিত করল। জানুয়ারিতে দুবাইয়ে ২৯ বছরের এই উইকেট কিপারের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। সেখানে তাঁর নমুনায় ক্লেনবিউটেরল পাওয়া গিয়েছে। যেটা এক ধরনের নিষিদ্ধ ড্রাগ। ওয়ার্ল্ড অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সির নিষিদ্ধ তালিকায় রয়েছে এই ড্রাগ।

এই ধরনের ড্রাগ ব্যবহার করা হয় শ্বাস কষ্ট বা অ্যাস্থমা  জনিত রোগে। যা প্রতিযোগিতার বাইরে রাখা হয়। যার ফলে শাহজাদকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। আইসিসি জানিয়েছে, অসাবধানতাবশত এই নিষিদ্ধ ড্রাগ শাহজাদের ওজন কম করার ড্রাগের সঙ্গে মিলিয়ে দেওয়া হয়েছিল।’’

১৭ জানুয়ারি ২০১৭ থেকে তাঁর নির্বাসন ধরা হলে তাঁকে নির্বাসিত থাকতে হবে ১৭ জানুয়ারি ২০১৮ পর্যন্ত। এই ঘটনা সব ক্রিকেটারদের জন্য সতর্কবার্তার মতই কাজ করবে। যাতে সকলেই কী খাচ্ছে বা তাঁদের শরীরে কী যাচ্ছে সেটার বিষয়ে অবগত থাকেন।

শাহজাদ ৫৮টি ওয়ান ডে ও ৫৮টি টি২০ ম্যাচ খেলেছেন আফগানিস্তানের হয়ে। 

আরও পড়ুন

আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে এক লাফে দু’য়ে বিরাট

দিল্লি টেস্ট খেলানো ঠিক হয়নি, বোর্ডকে চিঠি আইএমএ-এর