এ যেন এই প্রজন্মের সব্যসাচী। তাও আবার ক্রিকেট মাঠে। এমনটাই ঘটেছে ভারত-অস্ট্রেলিয়া অনুশীলন ম্যাচে। অক্ষয় কারনেওয়ার সেই ম্যাচে দেখালেন তেমনই এক প্রতিভা। যিনি দু’হাতে বল করে চমকে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া দলকে। ম্যাচ শেষে তাঁকে নিয়েই আলোচনা অস্ট্রেলিয়ার ড্রেসিংরুমে। অক্ষয় ডানহাতে অফ-ব্রেকের পাশাপাশি বাঁহাতে স্পিনটাও করতে পারেন। অনুশীলন ম্যাচে ছ’ওভার বল করে ১ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। তাঁর শিকার ত্রাভিস হেড। ব্যাট হাতেও পেয়েছিলেন ৪০ রান। তাই তাঁকে ঘিরেই আলোচনা  অস্ট্রেলিয়ান ড্রেসিংরুমে।

আরও পড়ুন

চমকে গেলেন দেবজিৎ! দীপেন্দুকে বললেন, এ কী করেছিস...

অলিম্পিয়াকে নিয়ে বাড়ি ফিরলেন সেরেনা, দেখুন ভিডিও

অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান মার্কাস স্তইনিস স্বীকারও করে নিয়েছেন, অক্ষয়কে দেখে চমকে গিয়েছেন তাঁরা। তিনি তাঁর বোলিং শুরু করেছিলেন বাঁহাতি ত্রাভিসকে ডানহাতে অফ-স্পিন দিয়ে। কিন্তু যখন ডানহাতি স্তইনিস এলেন ক্রিজে তখন শুধু যে বোলিং স্টাইলই বদলালেন এমনটা নয়, তিনি মুহূর্তে বদলে ফেললেন হাতও। চলে গেলেন বাঁ হাতে। আম্পায়ারকে বলেই হাত পরিবর্তন করেছিলেন অক্ষয়। আম্পায়ার স্তইনিসকে সেই কথা অফিশিয়ালি জানিয়েওছিলেন। স্তইনিস বলেন, ‘‘আমি সত্যিই বুঝতে পারিনি আম্পায়ার ঠিক আমাকে কী বলতে চাইছিলেন। পরে বুঝি তিনি বলতে চাইছিলেন ও আমাকে বাঁ হাতে বল করবে। আমি এরকম আগে কখনও দেখিনি।’’

দেখুন ভিডিও

ডোমেস্টিক পর্যায়ে এই কারণেই পরিচিত কারনেওয়ার। গত বছর প্রথম অক্ষয়ের এওই প্রতিভার কথা জানা গিয়েছিল মুস্তাক আলি ট্রফিতে। যখন বিসিসিআই-এর ওয়েব সাইটে অক্ষয়ের দু’হাতে অফ-স্পিন ও লেফট আর্ম স্পিন বল করার ভিডিও পোস্ট করে।  যদিও অফ-স্পিনার হিসেবেই বোলিং কেরিয়ার শুরু করেছিলেন তিনি। এর পর বাঁ হাতে বোলিং শুরু করেন এই ছেলে। আর অক্ষয় এখন চান এ ভাবেই সারাজীবন দু’হাতে বল করে যেতে।