এটিকে ১ • নর্থইস্ট ইউনাইটেড ০

 

ইন্ডিয়ান সুপার লিগে দুই মহা কোচের মগজাস্ত্রের লড়াই দেখতে গুয়াহাটির মাঠে ভিড় জমিয়েছিলেন হাজার বারো দর্শক।

এটিকের টেডি শেরিংহ্যাম বনাম নর্থইস্ট ইউনাইটেডের আভ্রাম গ্র্যান্ট। যে ফুটবল-যুদ্ধে জিতে হাসি মুখে মাঠ ছাড়লেন প্রাক্তন ইংল্যান্ড স্ট্রাইকার শেরিংহ্যাম। অন্য দিকে, কোচের দায়িত্বে আসার পরে ঘরের মাঠে প্রথম ম্যাচ হেরে স্বভাবতই অস্বস্তিতে চেলসির প্রাক্তন ম্যানেজার আভ্রাম গ্র্যান্ট। মাঠে হাজির নর্থইস্ট ইউনাইটেডের সমর্থকরাও ম্যাচ শেষে নিরাশ হয়েই বাড়ি ফিরলেন।

দলের প্রধান অস্ত্র রবি কিন-কে কলকাতায় রেখেই গুয়াহাটিতে গিয়েছিল টেডি শেরিংহ্যামের দল।  এমনিতেই জন আব্রাহামের দল  গুয়াহাটিতে এটিকে-র বিরুদ্ধে সব সময়েই শক্ত প্রতিপক্ষ। আইএসএল-এর সেই পূর্বাঞ্চলীয় ডার্বি ম্যাচ জেকিনহার গোলে জিতে তিন পয়েন্ট তুলে নিয়ে ফিরছে কলকাতার দলটি।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পরে দ্বিতীয়ার্ধের ৭৩ মিনিটে এটিকের হয়ে গোল করে যান পর্তুগিজ ফুটবলার জেকিনহা। ফলে নয় ম্যাচের পর ১২ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলে ষষ্ঠ স্থানে উঠে এলেন দেবজিৎ মজুমদার-রা। নবম ম্যাচে এটি তৃতীয় জয় গত বছরের চ্যাম্পিয়নদের। এ দিন জয়ের ফলে টেডি শেরিংহ্যামের দলের পিছনে চলে গেল কেরল ব্লাস্টার্স এবং জামশেদপুর এফসিও।

অন্য দিকে, নতুন কোচ আভ্রাম গ্র্যান্ট আসার পরে,  আগের ম্যাচে গোয়ায় গিয়ে এফসি গোয়াকে হারিয়ে সমর্থকদের মনে নতুন আশা তৈরি করেছিলেন নির্মল ছেত্রীরা। কিন্তু  ফের হারের ফলে দশ দলের ইন্ডিয়ান সুপার লিগে নবম রাউন্ডের পরে জন আব্রাহামের দলের পয়েন্ট মাত্র সাত। লিগ টেবলে তাদের অবস্থান নয় নম্বরে।

গুয়াহাটির সরুসজাই স্টেডিয়ামে এ দিন জন আব্রাহামের দলের বিরুদ্ধে ৪-২-৩-১ ছকে নেমেছিল এটিকে। আল্ট্রা ডিফেন্সিভ ফর্মেশনে নেমেছিল এটিকে। টেডি শেরিংহ্যামের দলের লক্ষ্য ছিল প্রতিআক্রমণে বিপক্ষের গোলমুখ খুলে ফেলা। ভাগ্য সহায় থাকলে প্রথমার্ধে এটিকে-কে এগিয়ে দিতে পারতেন জেকিনহা, জয়েশ রানে-রা। এমনকি এটিকে-র হিতেশ শর্মাকে বিপক্ষ বক্সে অবৈধ ভাবে ফাউল করলেও নিশ্চিত পেনাল্টি থেকে বঞ্চিত হয় কলকাতার দলটি।   জেকিনহার গোলের সময় নর্থইস্ট-এর গনসালভেস-এর বাড়ানো পাস ধরে প্রবীর দাস বল বাড়িয়েছিলেন রবিন সিংহকে। রবিনের জোরালো শট নর্থইস্ট গোলকিপার রেহনেশ বিপন্মুক্ত করে। সেই বল নর্থইস্ট-এর সামবিনিয়া হেড করে বিপদসীমার বাইরে পাঠাতে গিয়ে তুলে দেয় জেকিনহার পায়ে। যেখান থেকে দর্শনীয় জোরালো ভলিতে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করে যান এটিকে-র এই পর্তুগিজ ফুটবলার।