দ্বিতীয় টেস্টে টসে জিতে ব্যাটংয়ের সিদ্ধান্ত দক্ষিণ আফ্রিকার। কেপ টাউন টেস্টের দল থেকে মাত্র একটি পরিবর্তনই করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার টিম ম্যানেজমেন্ট। চোট পাওয়া ডেল স্টেনের পরিবর্তে দলে জায়গা পেয়েছেন লুংগিসনি। অন্য দিকে, সিরিজে সমতা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে দ্বিতীয় টেস্টে দলে বেশ কিছু পরিবর্তন এনেছে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। শিখর ধবনের পরিবর্তে দ্বিতীয় টেস্টে ভারতীয় দলে ফেরানো হয়েছে কেএল রাহুলকে। শুধু ব্যাটিং লাইনআপেই নয়, পরিবর্তন এসেছে ভারতের বোলিং ইউনিটেও। ভুবনেশ্বর কুমারের পরিবর্তে দ্বিতীয় টেস্টে দলে সুযোগ পেয়েছেন ইশান্ত শর্মা। উইকেট রক্ষকের পজিশনে বদল এসেছে ভারতীয় দলে। ঋদ্ধিমান সাহার পরিবর্তে সেঞ্চুরিয়নে খেলছেন পার্থিব পটেল।

দুরন্ত প্রত্যাবর্তন টিম ইন্ডিয়ার। টি ব্রেকের পর চার উইকেট তুলে নিল বিরাট কোহালির দল। সেঞ্চুরিয়নের টেস্টে দিনের শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার রান ৬ উইকেটে ২৬৯।

তৃতীয় সেশন:

সেঞ্চুরিয়ন টেস্টের প্রথম দিনের শেষে দুর্দান্ত ভাবে ঘুরে দাঁড়াল বিরাট কোহালি বাহিনী। শেষ ঘণ্টায় তুলে নিল তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। সৌজন্যে, ভারতীয়দের ফিল্ডিং। শুরুটা হয়েছিল হাশিম আমলার রান আউট দিয়ে। হার্দিক পাণ্ড্যের শর্ট বলে সিঙ্গলস নিতে গিয়ে সামান্য দোটানায় ছিলেন আমলা। ওই একটা সুযোগই যথেষ্ট। ফলো থ্রু-তে ঘুরে দাঁড়িয়ে বোলার্স এন্ডের উইকেট ভেঙে দেন পাণ্ড্য। শতরান ফস্কে যায় আমলার। ৮৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। এর পর ক্রিজে বেশি ক্ষণ টেকেননি বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কক-ও। অশ্বিনের বলে খোঁচা দিয়ে স্লিপে ক্যাচ তুলে দেন। স্কোর তখন ২৫০-৫। এর পর ফের রান আউট। মাত্র শূন্য রানে ফিরে যান ভার্নন ফিলান্ডার।

ভারতীয়দের মধ্যে বল হাতে সাফল্য পেয়েছেন কেবলমাত্র রবিচন্দ্রন অশ্বিন। এ দিন তিনটি উইকেট পান তিনি। ইশান্ত শর্মার সংগ্রহ এক উইকেট। 

 

দ্বিতীয় সেশন

লাঞ্চের পরেও ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে রাখে দক্ষিণ আফ্রিকা। টি ব্রেক পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার রান ৫৬ ওভারে ১৮২/২। মার্করাম এবং আমলার দাপুটে ব্যাটিংয়ে ১৫০ রানের গণ্ডি টপকায় প্রোটিয়া বাহিনী। অল্পের জন্য শতরান হাতছাড়া করেন প্রোটিয়া ওপেনার মার্করাম। ৯৪ রানে মার্করামকে প্যাভিলিয়নে ফেরান রবিচন্দ্রন অশ্বিন। এই একটি উইকেট ছাড়া আর কোনও সাফল্য পায়নি ভারত। এরই মাঝে ইশান্ত শর্মার বলে হাসিম আমলার ক্যাচ ফেলেন ঋদ্ধিমান সাহার পরিবর্তে দলে আসা পার্থিব পটেল। মার্করাম আউট হওয়ায় হাসিম আমলার সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিংয়ের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন এবি ডেভিলিয়ার্স। ১৬ রানে অপরাজিত এবি, অন্য দিকে ৩৫ রান করে ক্রিজে আছেন আমলা।

প্রথম সেশন:

টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত দক্ষিণ আফ্রিকার। দ্বিতীয় টেস্টে প্রথম দিনে প্রথম সেশন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার রান ২৭ ওভারে ৭৮/০। এ দিন দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসের শুরু থেকেই দুরন্ত ছন্দে ধরা দেন প্রোটিয়া ওপেনার মার্করাম এবং এলগার। লাঞ্চের আগেই পঞ্চাশ রানে গণ্ডি পেরন তরুণ ওপেনার মার্করাম। ৫১ রানে অপরাজিত তিনি। মার্করামকে যোগ্যত সঙ্গত দিচ্ছেন আরেক ওপেনার এলগার। ২৬ রানে অপরাজিত আছেন এলগার।

আরও পড়ুন: ‘ভুবনেশ্বর নেই! এটা কি ইয়ারকি হচ্ছে?’

আরও পড়ুন: নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে লজ্জার হার পাকিস্তানের

অন্য দিকে, দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানদের পাশাপাশি বল হাতে ভাল পারফর্ম করছেন ভারতীয় বোলাররাও। বিশেষত রবিচন্দ্রন অশ্বিন এবং ইশান্ত শর্মার বোলিংয়ের গড় চোখে পড়ার মতো। তবে, পরিশ্রম করলেও দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংসে ভাঙন আনতে এখনও পর্যন্ত ব্যর্থ জাসপ্রীত বুমরা-ইশান্ত শর্মারা।