তিনি ব্যাট হাতে নামলে নিশ্চিন্ত মুখে ডাগ আউটে বসে থাকতে দেখা যায় কোচ রবি শাস্ত্রীকে। তিনি ক্রিজে থাকলে সবাই জানে লড়ে যাবে ভারত। তিনি কথা বললে, দলের বাকিরা জানেন তাঁদের ভুলের দায়ও নিজের কাঁধে তুলে নিয়ে ঢাল হয়ে দাঁড়াবেন ওই একজনই। সেই বিরাট কোহালির ব্যাট থেকে যখন আবার সেঞ্চুরি আসে তখন এই বাকি ঘটনা গুলোর মতই খুব স্বাভাবিকই মনে হয় ১০০ রানের ইনিংস। কিন্তু এর মধ্যেই খুব গোপনে রেকর্ডও করে ফেলেন সেই বিরাট কোহালি।

বুধবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তৃতীয় ওয়ান ডে-তেও বিরাট কোহালির ব্যাট থেকে এসেছে সেঞ্চুরি। ১৬০ রানের অপরাজিত ইনিংস। আর এই ইনিংস খেলতে বিরাট কোহালির লেগেছে ১৫৯ বল। গড় ১০০.৬২। এই ১৬০ রানের মধ্যে ১০০ রান বিরাট কোহালি নিয়েছেন দৌড়ে। বাকি ৬০ রান এসেছে বাউন্ডারি ও ওভার বাউন্ডারি থেকে।

এই সেঞ্চুরির সঙ্গে যে শুধু সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অধিনায়ক হিসেবে সেঞ্চুরির রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেলেন বিরাট তা নয় সঙ্গে আরও একটি রেকর্ড ভাঙলেন।সেটাও সৌরভেরই।  কোহালিই প্রথম ভারতীয় যার ব্যাট থেকে একদিনের ম্যাচে ১০০ রান এল শুধু দৌড়ে। বিশ্বের পঞ্চম ব্যাটসম্যান তিনি। এর আগে ভারতীয়দের মধ্যে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় সর্বোচ্চ ৯৮ রান করেছিলেন দৌড়ে। সেই ম্যাচে ১৯৯৯ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ১৩০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন
শুধু দৌড়ে ১০০ রানের তালিকায় কে কে?

এই তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন ভারতের প্রাক্তন কোচ গ্যারি কার্স্টেন (১১২)। এর পর রয়েছেন ফাফ দু প্লেসি (১০৩)। অ্যাডাম গিল ক্রিস্ট (১০২), মার্টিন গাপ্তিল (১০১)। কিন্তু সবার থেকে কোহালি একটা জায়গায় আলদা হয়ে গিয়েছেন। যেটা ম্যাচ চলাকালীন কাউকে বুঝতে দেননি তিনি। ম্যাচ শেষে নিজেই জানান ১০০ রান তিনি দৌড়ে কতটা কষ্ট করে নিয়েছিলেন। কারণ ম্যাচটা তিনি ক্র্যাম্প নিয়ে খেলেছেন। বিরাট বলেন, ‘‘শেষের বেশ খানিকটা সময় আগে আমার ক্র্যাম্প হয়ে গিয়েছিল।কিন্তু আমি জানতাম দলের ৩০০ রান হওয়ার আগে আউট হওয়া যাবে না। এটাই সময় ছিল মানসিক ও শারীরিকভাবে পরীক্ষার।’’

পায়ে ক্র্যাম্প নিয়ে এ ভাবেই রানের জন্য ঝাঁপালেন বিরাট কোহালি।

বিরাটই প্রথম ভারতীয় যাঁর ব্যাট থেকে আসা ১৬০ রানের ইনিংস দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে তাদের বিরুদ্ধে কোনও ভারতীয়র করা সর্বোচ্চ রান। ২০০১ সালে জোহানেসবার্গে ১২৭ রানের ইনিংস ছিল সৌরভের। এতদিন এটাই ছিল সর্বোচ্চ। এখানেও সৌরভকে ছাপিয়ে গেলেন বিরাট। কোহালিই প্রথম ভারতীয়যিনি নিউল্যান্ডসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করলেন। এই গ্রাউন্ডে একমাত্র সেঞ্চুরি ছিল সৌরভের। কিন্তু সেটা কেনিয়ার বিরুদ্ধে।

অধিনায়ক হিসেবে সৌরভের ১১টি সেঞ্চুরির রেকর্ডকে ছাপিয়ে১২টি সেঞ্চুরি করলেন বিরাট। যদিও সৌরভ করেছিলেন ১৪২ ইনিংসে, বিরাট করলেন ৪৩ ইনিংসে। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে কোনও ব্যাটসম্যান হিসেবেও সর্বোচ্চ রান (৩১৮) করে ফেলেছেন বিরাট। হাতে এখনও তিনটি ওয়ান ডে বাকি।এর আগে এই রেকর্ড ছিল ২০০১-০২ মরসুমে রিকি পন্টিংয়ের (২৮৩)।