সমস্যাটা দেখা দেয় প্রায় প্রতি বছরই। তবু তা থেকে শিক্ষা নিয়ে ঠিক সময়ে সব স্কুলে নিখরচার পাঠ্যবই পাঠিয়ে দেওয়ার জন্য আগেভাগে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে শিক্ষা শিবিরের অভিযোগ। তার ফলে সমস্যা শুরু হয়েছে এ বারেও। অভিযোগ, নতুন ইংরেজি বছরের প্রায় দু’সপ্তাহ কেটে যাওয়া সত্ত্বেও রাজ্যের বেশ কিছু পড়ুয়ার হাতে সব বই পৌঁছয়নি। সকলে কেন এখনও বই পেল না, তা নিয়ে সরব হয়েছে বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতি।

রাজ্যের সরকারি, সরকার পোষিত ও সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলগুলিতে পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীদের বিনামূল্যে বই দেয় সরকার। নবম-দশম শ্রেণির ক্ষেত্রে নিখরচায় দেওয়া হয় বাংলা, ইংরেজি-সহ মোট চারটি বই। কিন্তু এ বার বহু পড়ুয়া এখনও সব বই পায়নি বলে অভিযোগ তুলেছেন বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক স্বপন মণ্ডল। তিনি জানান, খাস কলকাতাতেও সব বই মেলেনি। তা ছাড়াও নদিয়া, হাওড়া, পুরুলিয়া, দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর থেকে বই না-পাওয়ার অভিযোগ আসছে।

বইয়ের বিলিবণ্টন দেখভালের অন্যতম দায়িত্ব মধ্যশিক্ষা পর্ষদের। বই না-পাওয়ার অভিযোগ মানতে নারাজ পর্ষদ-সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘‘জেলায় জেলায় ঘুরেও এই ধরনের কোনও অভিযোগ পাইনি। বই নির্দিষ্ট সময়ের অনেক আগেই বিলি হয়েছে।’’