নারদ কাণ্ডে অভিযুক্ত নেতা-মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ না হলেও, সাংবাদিক তথা স্টিং অপারেশনের উদ্যোক্তা ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে কলকাতা পুলিশের সক্রিয়তা অব্যহত। যত দিন নারদ মামলা কলকাতা হাইকোর্টের বিচারাধীন, তত দিন ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে এ রাজ্যের পুলিশ কোনও পদক্ষেপ করতে পারবে না, এমনই নির্দেশ ছিল কলকাতা হাইকোর্টের। রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল পরে নিজেও হাইকোর্টকে প্রতিশ্রুতি দেন, আদালতকে না জানিয়ে ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হবে না। কিন্তু ফের ম্যাথুর বিরুদ্ধে পুলিশ সক্রিয় হল। শুক্রবার দিল্লিতে ম্যাথুর ফ্ল্যাটে হানা দিয়ে কলকাতা পুলিশ। ম্যাথু স্যামুয়েলকে না পেয়ে ফ্ল্যাটের নিরাপত্তা রক্ষীকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করেছে বলে জানা গিয়েছে।

ম্যাথু স্যামুয়েলের স্টিং অপারেশনের জেরে যাঁদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ সামনে এসেছিল, তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ হয়নি। কিন্তু ম্যাথুর বিরুদ্ধে সক্রিয়তা চলছেই। —ফাইল চিত্র।

কলকাতা হাইকোর্টকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভেঙে পশ্চিমবঙ্গ সরকার ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করছে বলে ম্যাথুর কৌঁসুলি অরুণাভ ঘোষ এ দিন অভিযোগ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, শুক্রবার কলকাতা পুলিশ দিল্লিতে ম্যাথু স্যামুয়েলের ফ্ল্যাটে হানা দেয়। মুচিপাড়া থানা থেকে এক পুলিশ কর্মী সেখানে গিয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছে। ম্যাথুকে না পেয়ে ফ্ল্যাটের নিরাপত্তারক্ষীর সঙ্গে তিনি কথা বলেন। ফ্ল্যাটটি ম্যাথু কবে কিনেছেন, কত টাকায় কিনেছেন, কা ভাবে কিনলেন, নিরাপত্তারক্ষীকে সে সব বিষয়েই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর রোষে সাসপেন্ড ৬ বছর, কী আছে কপালে? জানতে চান সেই ডাক্তার

অরুণাভ ঘোষ বলেছেন, ‘‘রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল হাইকোর্টে সবার সামনে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে নারদ কাণ্ডের তদন্ত ভার কার হাতে যাবে, সে বিষয়টি যত দিন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারাধীন থাকবে, তত দিন রাজ্য সরকার ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হবে না। সরকারের উচিত নিজেদের দেওয়া সেই প্রতিশ্রুতির কথা মনে রাখা।’’