ছোট পরদার প্রিয় পম্মি এ বার নেগেটিভ চরিত্রে। তিন দশকের কেরিয়ারে গুডি গুডি চরিত্রে হামেশাই দেখা গিয়েছে সঙ্গীতা ঘোষকে। পরীক্ষা দিয়েছেন প্রেমের জন্য, কখনও বা পরিবারের জন্য। সেই সঙ্গীতাই এই প্রথম হাত পাকাবেন গ্রে শেডসের চরিত্রে। সৌজন্যে স্টার প্লাসের নতুন ধারাবাহিক ‘চক্রব্যূহ’। সঙ্গীতার চরিত্রের নাম সুধা। সে বাঙালি কিন্তু সাইকো। পরিবারের প্রতি সুধা দায়বদ্ধ। আপনার এত দিনের তৈরি ইমেজ ভেঙে যাওয়ার ভয় হয় না? ‘‘একদম না। দর্শক এত বছর ধরে আমার কাজ দেখছেন, আমাকে মনে রেখেছেন। সুধাকে দেখার পরে তাঁদের যদি আমাকে মারার ইচ্ছে হয়, তবেই আমি সবচেয়ে খুশি হব,’’ দৃপ্ত কণ্ঠে বললেন ‘মেহেন্দি তেরে নাম কি’-এর মুসকান।

এত বছর ধরে কাজ করছেন, ইন্ডাস্ট্রির কোনও পরিবর্তন নজরে পড়ে? সঙ্গীতা বলেন, ‘‘আগের চেয়ে অনেক বেশি লোক কাজ করছেন। আমি যখন শুরু করেছিলাম, তখন যদি ৪০টা লোক থাকতেন, এখন প্রায় একশো জনের কাছাকাছি। তাই প্রতিযোগিতা তো বেড়েছেই। পাশাপাশি কাজ অনেক বেশি গুছিয়ে হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে ফ্যানেদের সঙ্গে যোগাযোগ বেড়েছে। তাই শোয়ের প্রযোজকরা টিআরপির পাশাপাশি দর্শকের চাওয়া-পাওয়ার উপরও কড়া নজর রাখেন।’’ তবে সঙ্গীতা এটাও মানলেন, কাজের চাপ বাড়ায় স্ট্রেস বেড়েছে পাল্লা দিয়ে।

সঙ্গীতার স্বামী পোলো খেলোয়াড় রাজভি শৈলেন্দ্র সিংহ রাঠৌর। কাজের সূত্রে সঙ্গীতা থাকেন মুম্বইয়ে। আর ওঁর স্বামী জয়পুরে। হাসতে হাসতে বললেন, ‘‘যখন কাজ করি, তখন এটা লং ডিসটেন্স ম্যারেজ। তবে সুযোগ পেলেই আমরা একসঙ্গে সময় কাটাই।’’ সঙ্গীতার টুইটার দেখলেই বুঝতে পারবেন, স্বামীর সঙ্গে বেড়ানোর একটা সুযোগও হাতছাড়া করেন না তিনি।

আরও পড়ুন: জিৎ আমার বন্ধু দেব আমার ভাই

 খেলায় আগ্রহ আছে? ‘‘ক্রিকেট, টেনিস খুব দেখি। পোলো ম্যাচও দেখতে যাই। তবে ওটায় অনেক রিস্ক আছে,’’ বেশ ভয়ার্ত কণ্ঠে বললেন সঙ্গীতা। স্বামী কি বাংলা বলেন? ‘‘না, দু-একটা শব্দ বোঝে। তবে আমি বাড়িতে বেশ বাংলা বলি। আর ওর সঙ্গে থেকে আধা মারওয়াড়ি হয়ে গিয়েছি। বলতে পারি না তবে বেশ বুঝতে পারি মারওয়াড়ি, ’’ হাসির দমকে বলে উঠলেন ছোট পরদার জনপ্রিয় নায়িকা।

অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন ডান্স শোয়ে বেশ কয়েকবার দেখা গিয়েছে সঙ্গীতাকে। বললেন, ‘‘ছোটবেলায় ভরতনাট্যম শিখেছিলাম। কত্থক শিখতে চাই অনেক দিন ধরে। তবে হয়ে উঠছে না। আমিও খুব আলসে হয়ে গিয়েছি’’, হাল্কা হাসি শোনা গেল ফোনের ওপারে। কখনও হিন্দি ছবিতে যাওয়ার কথা ভাবেননি? ‘‘না, সে ভাবে নয়। আর আমি যা করছি তাতেই আমি বেশ খুশি। যদি ভাল অফার আসে নিশ্চয়ই ভেবে দেখব’’, বললেন সঙ্গীতা।

যে অভিনেত্রী এত কাল ষড়যন্ত্রের চক্রব্যূহ ভেদ করে সত্যের জয় ঘোষণা করে এসেছেন, তাঁর রচিত চক্রব্যূহে মজবে কি দর্শকের মন? সময় বলবে সে কথা।