Follow us on
Powered by
Co-Powered by
Co-Sponsors
Powered by
Co-Powered by
Co-Sponsors

কুশনের রকমারি জামায় ঘর সাজাচ্ছে কলকাতা

শ্রুবা ভট্টাচার্য
কলকাতা| ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৭:৩৭ শেষ আপডেট: ০৩ মার্চ ২০২১ ১৫:২৮

আপনি কি আপনার ঘরকে নতুনসাজে সাজাতে চান? রকমারি কুশনকে বিভিন্ন জায়গায় সাজিয়ে আপনি এনে দিতে পারেন আপনার ঘরের এক নতুন ‘মেক-ওভার’। বেডরুম থেকে বসার ঘর, বিছানা থেকে সোফা—সর্বত্রই কুশন দিয়ে সাজানো থাকলে অন্দরমহলের চেহারা একেবারেই বদলে যায়। ঘরের কোণে একটি গদির ওপর একটি সুন্দর চাদর রাখুন। তার উপর কিছু কুশন রেখে দিন। সেখানে আলোর বিন্যাস করুন স্নিগ্ধ। দিনের শেষে সেই ছোট্ট ঘরের কোণটিই হয়ে উঠবে আপনার প্রিয় অবসরযাপন। এক কাপ কফি আর প্রিয় মিউজকের সঙ্গে সেখানে বসে দূর করুন দিনের ক্লান্তি। বন্ধুরা এলে সেটাই হয়ে উঠুক ঘরোয়া আড্ডাজোন। এছাড়াও বিছানায় বালিশের জায়গায় বিকল্প হিসেবে আপনি কুশনও ব্যবহার করতে পারেন। এখন এটিও বেশ চলনসই। সোফার ওপর কুশনের চল তো বহু আগে থেকেই চলে আসছে।


বাজারে বিভিন্ন জিনিসের কুশন পাওয়া যায়।

∙ সাটিন

∙ ভেলভেট

∙ সিল্ক

∙ সুতি

∙ জুট বা পাট

∙ লেদার বা চামড়া


ভেলভেট, সিল্ক অথবা সুতি বা জুটের কভারে মোড়া কুশনগুলি সোফা, কর্ণার অথবা বেডরুমের জন্যে মানানসই এবং আরামদায়ক। একটু বয়স্কদের ঘরের জন্যে সাটিনের কুশন রাখতে পারেন। লেদারের তৈরি কুশন লেদারের সোফার সঙ্গে ভাবতে পারেন। ছোটদের ঘরের জন্য সুতির কুশনকভার সবথেকে ভাল, কারণ সেগুলো সহজেই পরিষ্কার করার যায়। ভেলভেট, সিল্ক বা লেদারের কুশন কভারগুলিকে যত্ন নিয়ে ব্যবহার করতে হবে। দোকানে বা অনলাইনে হরেক রকমের কুশন এবং কুশনকভার পেয়ে যাবেন। সাধ ও সাধ্যের মেলবন্ধন করে কিনে ফেলুন। গোল, চৌকো ছাড়া অন্য মাপের কুশনও এখন বেশ জনপ্রিয়। স্বাদ বদলাতে কিনতে পারেন সেগুলিও। অন্দরসাজের একঘেয়েমি কাটাতে কুশন পাল্টে দেখুন। আপনারও মন ভাল হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন