বাংলাদেশে ফাঁসির রায় ৫ রাজাকারের


একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধে পাকিস্তানি বাহিনীর সহযোগী হিসেবে খুন ও গণধর্ষণে যুক্ত থাকায় পটুয়াখালির পাঁচ রাজাকার নেতাকে ফাঁসির আদেশ দিল বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ আদালত। 

দীর্ঘ শুনানির পরে এ দিন রায়ে বলা হয়, প্রসিকিউশনের আনা দু’টি অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে। এর একটি পটুয়াখালির ইটাবেড়িয়া গ্রামে লুট, অগ্নিসংযোগ, অপহরণ করে নির্যাতন ও ১৭ জনকে খুনের অভিযোগে সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দ্বিতীয় অভিযোগ ওই গ্রামেরই ১৫ জন মহিলাকে গণধর্ষণ। তার শাস্তি হিসেবেও মৃত্যুদণ্ডই দেওয়া হয়েছে সেই সময়ে মুসলিম লিগ ও এখন বিএনপি নেতা ইসহাক সিকদার, আব্দুল গনি হাওলাদার, আব্দুল আওয়াল, আব্দুস সাত্তার পেয়াদা ও সোলায়মান মৃধাকে।

রায়ে বলা হয়েছে, ‘‘আসামিরা ধর্ষণকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছে, যা একটি তাজা বুলেটের চেয়েও ভয়ঙ্কর ও শক্তিশালী। যাঁরা এর শিকার হয়েছেন, আজীবন তাঁদের এই ক্ষত বয়ে বেড়াতে হবে।’’ প্রসিকিউটররা রায়কে নিজেদের জয় বলে বর্ণনা করলেও আসামিদের আইনজীবীরা জানিয়েছেন, তাঁরা সুপ্রিম কোর্টে আপিল করবেন।