আইসিইউতে মেয়ে, মায়ের ‘শ্লীলতাহানি’ হাসপাতাল চত্বরে!

প্রতীকী ছবি।

পাঁচ দিনের মেয়ের তখন যায় যায় দশা। আলুথালু অবস্থা মায়ের। সেই অবস্থাতেই তাঁর হাত ধরে টানাটানি করে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল মদ্যপ এক যুবকের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার রাতে ডায়মন্ড হারবার জেলা হাসপাতালের এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্তকে। তার আগেই অবশ্য মারা গিয়েছে অভিযোগকারিনী মহিলার শিশু।  

মহিলার বাড়ির লোকজন হাসপাতালে চড়াও হয়ে বিক্ষোভ দেখান। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। হাসপাতাল থেকেই তিন অস্থায়ী কর্মীকে আটক করে থানায় আনা হয়। পরে গ্রেফতার করা হয় পার্থ দলুই নামে ওই যুবককে। শুক্রবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁকে ১৪ দিন জেলহাজতে রাখার নির্দেশ দেন। 

হাসপাতাল ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন পাঁচেক আগে সরিষার গ্রামের ওই বধূ সরিষা গ্রামীণ হাসপাতালে শিশুকন্যার জন্ম দেন। মেয়ের গয়ে জ্বর। গ্রামীণ হাসপাতাল থেকে তাকে ‘রেফার’ করা হয় ডায়মন্ড হারবার জেলা হাসপাতালে। তিন তলায় শিশু বিভাগের সিসিইউতে ভর্তি ছিল শিশুটি। বৃহস্পতিবার রাতে তার অবস্থা আরও সঙ্কটজনক ছিল। 

আরও পড়ুন: পাশে ঘুমিয়ে মেয়ে, দেহ উদ্ধার বাবার

শিশুটির মা জানান, রাতের দিকে তিনতলার বারান্দায় দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। কী করবেন ভেবে দিশাহার। সে সময়ে তিন যুবক টলতে টলতে হাজির হয়। তাদের মধ্যে একজন মহিলার হাত ধরে টেনে নীচে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। মহিলার চিৎকারে অবশ্য পালায় যুবকেরা।কিছুক্ষণের মধ্যেই খবর আসে, মারা গিয়েছে মহিলার সন্তান। 

জেলা হাসপাতালের সুপার চিরঞ্জীব মুর্মু বলেন, ‘‘আমার কাছে কোনও লিখিত অভিযোগ হয়নি। পুলিশ বিষয়টি দেখছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দেখব, কী ঘটেছে।’’