গয়না লুটে ধৃত তিন পুরুলিয়ায়

উদ্ধার গয়না ও আগ্নেয়াস্ত্র। পুরুলিয়া থানায়। নিজস্ব চিত্র

স্টেশনের সামনে সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাঘুরি করছিল তিন যুবক। বন্‌ধে টহলদারির সময়ে তাদের দেখে সন্দেহ হয়েছিল পুলিশের। তল্লাশি চালাতেই উদ্ধার হল গয়না ও আগ্নেয়াস্ত্র। সোমবার পুরুলিয়ায় ধৃত ওই তিন জন দুর্গাপুরে সোনার দোকানে ডাকাতিতে জড়িত বলে জেরায় স্বীকার করেছে, দাবি পুলিশের।

রবিবার দুর্গাপুরের কোকআভেন থানার এসবি মোড়ের কাছে জেসি অ্যাভিনিউয়ে একটি সোনার দোকানে ডাকাতি হয় দিনদুপুরে। সশস্ত্র একটি দল দোকানের কর্মীদের একটি ঘরে আটকে রেখে বহু গয়না ও কয়েক লক্ষ টাকা নিয়ে পালায় বলে অভিযোগ। ধৃতদের মঙ্গলবার পুরুলিয়া আদালতে তুলে হেফাজতে নেওয়ার চেষ্টা করা হবে বলে জানান আসানসোল-দুর্গাপুরের ডিসিপি (পূর্ব) অভিষেক মোদী।

দোকানের কর্মীরা জানান, সে দিন দুপুরে প্রথমে তিন যুবক দোকানে ঢুকে আংটি দেখতে চায়। সেই সময় আর কোনও ক্রেতা ছিলেন না। কিছুক্ষণের মধ্যে কর্মীরা গেটের দিক থেকে একটি আওয়াজ পেয়ে দেখেন, নিরাপত্তাকর্মী ছিটকে পড়েছেন। এর পরে ভিতরে ঢোকে আরও দু’জন। পাঁচ জনই আগ্নেয়াস্ত্র বার করে কর্মীদের হাত বেঁধে একটি ঘরে ঢুকিয়ে দেয়। তাঁদের অভিযোগ, মিনিট কুড়ি পরে বাইরে বেরিয়ে দেখেন, দোকানের প্রায় সব গয়না ও নগদ টাকা নিয়ে পালিয়েছে দুষ্কৃতীরা। সিসি ক্যামেরার ডিভিআর বক্সটিও নিয়ে পালায় তারা।

স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে সে দিন পুলিশ জেনেছিল, একটি বড় সাদা গাড়িতে করে দুষ্কৃতীরা পালায়। আশপাশের সব থানায় খবর পাঠানো হয়। ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পরে আসানসোল দক্ষিণ থানা এলাকায় গাড়িটি পায় পুলিশ। তবে কারও হদিস মেলেনি। পুরুলিয়া সদর থানার পুলিশ জানায়, সোমবার স্টেশনের কাছে তিন জনকে সন্দেহজনক ভাবে ঘুরতে দেখে আটক করা হয়। তিন জনকে আলাদা ভাবে জেরা করা হলে তারা অংসলগ্ন কথাবার্তা বলে। তাতে সন্দেহ                আরও বাড়ে। 

পুলিশ জানায়, তল্লাশি করে দু’জনের কাছে দু’টি আগ্নেয়াস্ত্র ও বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি মেলে। উদ্ধার হয় বেশ কিছু গয়না। তাতে দুর্গাপুরের দোকানের ট্যাগ ছিল। এর পরেই তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃত প্রদীপ সিংহ, দীপক কুমার ও অদিত নাগ উত্তরপ্রদেশের মেরঠের বাসিন্দা। পুলিশের দাবি, ধৃতেরা জানিয়েছে, তারা দলে ছ’জন ছিল। লুটপাটের ভাগ নিয়ে যাচ্ছিল তারা।

এ দিন কলকাতা থেকে সিআইডি-র একটি দল দুর্গাপুরে তদন্তে আসে। আঙুলের ছাপ-সহ নানা চিহ্ন সংগ্রহ করা হয়। এক দুষ্কৃতীর ছবি আঁকানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ধৃত তিন জনকে জেরা করতে এ দিনই দুর্গাপুর থেকে পুলিশের একটি দল পুরুলিয়ায় গিয়েছে।